ঢাকা শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২১
দূর শিক্ষণে অংশ নিচ্ছে না সাড়ে ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী!
  • স্টাফ রিপোর্টার
  • ২০২১-০১-১৯ ১৯:০৬:২৯

ফুলকি ডেস্ক : প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে দূর-শিক্ষণে সংসদ টিভি, অনলাইন, রেডিও ও মোবাইল ফোন প্রক্রিয়ায় ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছে। আর ৬৯ দশমিক ৫ শতাংশ অংশগ্রহণ করেনি। তবে ৩৭ দশমিক ৮ শতাংশ শিক্ষার্থী পরিবার বা অন্যদের কাছ থেকে এ কার্যক্রমে সহায়তা পেয়েছে।
মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) ‘এডুকেশন ওয়াচ’ এর ২০২০-২১ সমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে। ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে এই গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।


বেসরকারি সংগঠন গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক ও  তত্ত্বাবধায়ক সরকারে সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সমীক্ষা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন এডুকেশন ওয়াচের গবেষক ও গণসাক্ষরতা অভিযানের প্রোগ্রাম ম্যানেজার ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান।
প্রতিবেদনে বলা হয়, যেসব শিক্ষার্থী দূর-শিক্ষণ প্রক্রিয়ার বাইরে রয়েছে, তাদের মধ্যে ৫৭ দশমিক ৯ শতাংশ ডিভাইসের অভাবে অংশগ্রহণ করতে পারছে না। গ্রামীণ এলাকায় এই হার ৬৮ দশমিক ৯ শতাংশ। অনলাইন ক্লাস আকষর্ণীয় না হওয়ায় ১৬ দশমিক ৫ শতাংশ শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে না।  আর ৯৯ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়িতে নিজে নিজে পড়ালেখা করেছে বলে সমীক্ষা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।


গত বছরের ৭ থেকে ২২ নভেম্বর এই দুই সপ্তাহের সমীক্ষা তথ্যে দেখা গেছে, ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ শিক্ষার্থী দূর-শিক্ষণ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে। এদের মধ্যে দৈনিক গড়ে ৫০ মিনিট দূর-শিক্ষণের মাধ্যমে পড়ালেখায় ব্যয় করে। মাধ্যমিক পর্যায়ে তা ৫৫ মিনিটি ও বস্তি এলাকায় গড়ে ৪০ মিনিট। বস্তি এলাকায় মাধ্যমিক পর্যায়ে মেয়ে শিক্ষার্থীদের দূর-শিক্ষণে অংশগ্রহণের গড় সময় মাত্র ২৫ মিনিট। শিক্ষার্থীরা দিনে গড়ে ১৮৮ মিনিট বাড়িতে পড়ালেখার কাজে ব্যয় করে। তারা পরিবারের আয়মূলক কাজে গড়ে ব্যয় করে দৈনিক ১৭১ মিনিট। প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে জানানো হয়, দেশের ৮টি বিভাগের ৮টি জেলা থেকে নির্ধারিত সূচকের ভিত্তিতে নমুনা নির্বাচন করে গবেষণার তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। মহামারির কারণে গবেষণার তথ্য সরাসরি মাঠ পর্যায় থেকে সংগ্রহের বদলে ঢাকা থেকে উত্তরদাতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করা হয়। রাজধানীসহ গ্রাম পর্যায় থেকেও তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

গব্ষেণায় মোট ২ হাজার ৯৯২ জন উত্তরদাতা অংশ নেয়। প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এডুকেশন ওয়াচের প্রধান গবেষক ড. মনজুর আহমদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান গবেষণা ও শিক্ষণ ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. সৈয়দ শাহাদৎ হোসেন, এডুকেশন ওয়াচের গবেষক ড. মোস্তাফিজুর রহমান, সদস্য অধ্যক্ষ কাজী ফারুক আহমেদ ও আহ্বায়ক ড. আহমদ মোশতাক রাজা চৌধুরী।

 

কওমি শিক্ষার্থীদের কর্মমুখী ও সাধারণ শিক্ষার সুযোগ দেবে সরকার
বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স-মাস্টার্স পড়তে পারবেন পলিটেকনিক শিক্ষার্থীরা
নির্ধারিত রুটিনেই সাত কলেজের পরীক্ষা