ঢাকা মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৭, ২০২১
সাভারের ৬ ছাত্র হত্যা মামলার রায় ২ ডিসেম্বর
  • স্টাফ রিপোর্টার
  • ২০২১-১১-২২ ০৬:৫৯:১০

 

সাভারের আমিনবাজারে নয় বছর আগে শবে বরাতের রাতে ছয় ছাত্রকে ডাকাত সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগে করা মামলার রায়ের জন্য আগামী ২ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত। আজ সোমবার ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে এ দিন ধার্য করেন।

২০১১ সালের ১৭ জুলাই শবেবরাতের রাতে আমিনবাজারের বড়দেশি গ্রামের কেবলাচরে ডাকাত সন্দেহে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। নিহতরা হলেন, ধানমন্ডির ম্যাপললিফে ‘এ’লেভেলের ছাত্র শামস রহিম শাম্মাম, মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের স্নাতক শ্রেণির দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ইব্রাহিম খলিল, বাঙলা কলেজের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র তৌহিদুর রহমান পলাশ, তেজগাঁও কলেজের ব্যবস্থাপনা প্রথম বর্ষের ছাত্র টিপু সুলতান, মিরপুরে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির (বিইউবিটি) বিবিএ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র সিতাব জাবীর মুনিব এবং বাঙলা কলেজের উচ্চমাধ্যমিকের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র কামরুজ্জামান কান্ত। 

নিহতদের সঙ্গে থাকা বন্ধু আল আমিন গুরুতর আহত হলেও পরে প্রাণে বেঁচে যান। ঘটনার পর কথিত ডাকাতির অভিযোগে বেঁচে যাওয়া আল আমিনসহ নিহতদের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় একটি ডাকাতি মামলা করেন স্থানীয় বালু ব্যবসায়ী আবদুল মালেক। ওই সময় পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা গ্রামবাসীকে আসামি করে সাভার মডেল থানায় আরেকটি মামলা করে।

মামলাটির তদন্ত শেষে ২০১৩ সালের ৭ জানুয়ারি র‌্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরীফ উদ্দিন আহমেদ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২০১৩ সালের ৮ জুলাই ৬০ জনের বিরুদ্ধে এ মামলায় অভিযোগ গঠন করেন আদালত। ওই ঘটনায় বেঁচে যাওয়া একমাত্র ভিকটিম আল আমিনকে একই ঘটনায় করা ডাকাতি মামলা থেকে সেদিন অব্যাহতি দেওয়া হয়।

ঢাকা জেলা বিএনপি নেতা নুর করিম ভূঁইয়া আর নেই
কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ইউনিয়নে সমাপ্ত নির্বাচনকে ঘিরে জনগণের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে
ধামরাইয়ে নবযুগ কলেজের প্রধান ফটকে বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ লেখা, মানছে না জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশনা
সর্বশেষ সংবাদ