ঢাকা মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৪, ২০২০
সাভারে অটোরিক্সা চালক হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন, গ্রেপ্তার ১
  • স্টাফ রিপোর্টার
  • ২০২০-১১-২০ ২০:৫৪:৪৯

 

 
 
সাভারে ব্যাটারীচালিত অটোরিক্সা চালক শেখ মিন্টুর (৩৫) ক্লুলেস হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করা হয়েছে। হত্যাকান্ডে জড়িত ব্যাটারী ছিনতাইকারী চক্রের দলনেতা মোঃ আলী হায়দার @ নাহিদ হাসানকে (২৭) গ্রেপ্তার করেছে বাংলাদেশ পুলিশের অন্যতম  বিশেষায়িত  ইউনিট পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশন (পিবিআই)। গ্রেপ্তারকৃত নাহিদ ঢাকা জেলার সাভার পৌর এলাকার উত্তর জামসিং মহল্লার ইবনে মিজান আল মামুনের ছেলে। এঘটনায় শুক্রবার দুপুরে পিবিআই কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। 
 
এব্যাপারে পুলিশ পরিদর্শক মোঃ রাশিদুল ইসলাম বলেন, আশুলিয়ায় পাথালিয়ার গেরুয়া এলাকায় চলতি বছর ১৩ জুলাই ব্যাটারীচালিত রিক্সা চালক শেখ মিন্টু হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত আশুলিয়া থানার মামলাটি পিবিআই ঢাকা জেলা স্ব-উদ্দোগে তদন্তভার অধিগ্রহণ করেন। মামলাটির তদন্তভার গ্রহণ করে শক্তিশালী গোয়েন্দা তৎপরতার মাধ্যমে জানা যায় যে,  সংঘবদ্ধ ব্যাটারীচালিত রিক্সার ব্যাটারী ছিনতাইকারী চক্র কর্তৃক রিক্সাচালক শেখ মিন্টু এই হত্যাকান্ডের শিকার হন। তিনি আরো বলেন, পিবিআই ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার মহোদয়ের বিচক্ষনমুলক নির্দেশনায় ও ঢাকা জেলা পিবিআই পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খোরশেদ আলমের নেতৃত্বে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আমি এবং এসআই সালে ইমরানসহ চৌকস টীম নিয়ে  অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে মামলাটির তদন্তে মাঠে নামি।
 
শক্তিশালী গোয়েন্দা তৎপরতায় এবং আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে এ হত্যাকান্ডে জড়িত ব্যাটারী ছিনতাইকারী চক্রের দলনেতা মোঃ আলী হায়দার @ নাহিদ হাসানকে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে আশুলিয়ার একটি ভাড়া বাড়ী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিকভাবে নাহিদ একজন ব্যাটারী ছিনতাইকারী চক্রের দলনেতা  বলে স্বীকার করেছে। ব্যাটারী ছিনতাইকারী এই চক্রটি বেশ কিছুদিন যাবত ব্যাটারী ছিনতাই করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে উক্ত ব্যাটারীগুলি বিক্রয় করে আসছে বলে জানায়। তারা শুধু ব্যাটারীই নয়, চালকের নিকট থাকা টাকা পয়সাও ছিনতাই করে নিয়ে যায়। 
 
এঘটনায় পিবিআই ইন্সপেক্টর রাশিদুল ইসলাম আরো বলেন, তারা ঘটনার দিন শেখ মিন্টুর রিক্সার ব্যাটারী ছিনতাই করার জন্য রিক্সাটি ভাড়া করে এই রিক্সায় উঠেছিল। কিন্তু রিক্সাচালক অন্ধকার গলি রাস্তা দেখে আর যেতে না চাওয়ায় এবং চিৎকার চেচামেচির কারণে সে তার সাথে থাকা  চাকু (সুইচ গিয়ার) দিয়ে পেটে ও গলায়  কয়েকটি ঘাই মারে। কিন্তু লোকজন দৌড়ে আসতে দেখে তারা ঘটনাস্থল থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাউন্ডারী ওয়ালের নিচে ফাকা জায়গা দিয়ে ঝাউবনে ঢুকে যায়। 
 
তার স্বীকারোক্তি এবং দেখানো মতে এ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত চাকু (সুইচ গিয়ার) ও সেন্ডেল উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত নাহিদ এর দেয়া তথ্য মতে পলাতক সহযোগিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান পিবিআই পুলিশের এই কর্মকর্তা।
 
সাভারে মেয়াদ উত্তীর্ণ ও অবৈধ ওষুধ বিক্রির দায়ে দুই ফার্মেসিকে ১ লাখ টাকা জরিমানা
সাভারে মাছের খামার থেকে হাজার লিটার মদ সহ আটক ১
আশুলিয়ায় কিশোর গ্যাংয়ের ৪ সদস্য গ্রেপ্তার