1. dailyfulki04@gmail.com : dfulki :
  2. fulki04@yahoo.com : Daily Fulki : Daily Fulki
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৩৬ পূর্বাহ্ন

গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীরের বরখাস্ত কেন অবৈধ নয়, জানতে চান হাইকোর্ট

  • আপডেট : মঙ্গলবার, ২৩ আগস্ট, ২০২২
  • ৬৭ বার দেখা হয়েছে

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদ থেকে জাহাঙ্গীর আলমের সাময়িক বরখাস্তের আদেশ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

আজ মঙ্গলবার বিচারপতি জাফর আহমেদ ও বিচারপতি মো. আখতারুজ্জামানের বেঞ্চ এই রুল জারি করেন। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব ও আইনসচিবসহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
আদালতে জাহাঙ্গীরের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রোকনউদ্দিন মাহমুদ। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী বেলায়েত হোসেন ও মশিউর রহমান সবুজ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ মো. রাসেল চৌধুরী ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুল আলম।

শুনানিতে ব্যারস্টির রোকন উদ্দিন মাহমুদ বলেন, গত বছরের ২৫ নভেম্বর মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এখনো কিছু হয়নি। আদালত বলেন, এত দেরিতে আসলেন কেন? রোকন উদ্দিন মাহমুদ বলেন, দেখতে চেয়েছি অভিযোগের কী হয়। এখনো কিছু হয়নি। অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে।

এর আগে গত ১৪ আগস্ট সাময়িক বরখাস্তের আদেশ স্থগিত চেয়ে রিটটি করা হয় বলে জানান মশিউর রহমান সবুজ।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে জাহাঙ্গীরের একটি মন্তব্যের অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হলে তোলপাড় শুরু হয়। ওই অডিওতে মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহীদ এবং বঙ্গবন্ধুর ভূমিকা নিয়ে ‘বিতর্কিত’ মন্তব্য করেন তিনি। ওই ঘটনায় জাহাঙ্গীরকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় আওয়ামী লীগ, তিনি তার জবাবও দেন। তবে কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় জাহাঙ্গীরকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত আসে। এরপরই ওই বছরের ২৫ নভেম্বর তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করে প্রজ্ঞাপন দেয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।

প্রজ্ঞাপনে মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে ভুয়া টেন্ডার, আরএফকিউ, বিভিন্ন পদে অযৌক্তিক লোকবল নিয়োগ, বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে ভুয়া বিল-ভাউচারের মাধ্যমে, একই কাজ বিভিন্ন প্রকল্পে দেখিয়ে অর্থ আত্মসাৎ এবং প্রতিবছর হাট-বাজার ইজারার অর্থ যথাযথভাবে নির্ধারিত খাতে জমা না রাখাসহ নানা অভিযোগের কথা উল্লেখ করা হয়।

বরখাস্তের পর জানতে চাইলে ওই সময় জাহাঙ্গীর আলম বলেছিলেন, ‘তিনি আদালতের দ্বারস্থ হবেন না। দলের নেত্রীর সিদ্ধান্ত তিনি সব সময় মেনে নেবেন।’ তবে সেই অবস্থান থেকে সরে এসে ৯ মাস পর উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হলেন জাহাঙ্গীর আলম।

এদিকে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের অভিযোগে দেশের বিভিন্ন জেলায় করা সাতটি মামলায় আগাম জামিন পেয়েছেন জাহাঙ্গীর আলম। সোমবার তাঁর আইনজীবী মশিউর রহমান সবুজ বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, সম্প্রতি হাইকোর্ট ওই মামলাগুলোতে তাঁকে ছয় সপ্তাহের জামিন দিয়েছেন।

 

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

সত্যের সন্ধানে নির্ভীক কিছু তরুণ সংবাদকর্মী নিয়ে আমাদের পথচলা

তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ডিএফপি’র মিডিয়া তালিকাভুক্ত ঢাকা জেলার একমাত্র স্থানীয় পত্রিকা