1. dailyfulki04@gmail.com : dfulki :
  2. fulki04@yahoo.com : Daily Fulki : Daily Fulki
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
সিংগাইরে গণডাকাতি মামলার ৭ আসামি গ্রেফতার, অস্ত্রসহ লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার বিদেশিদের কাছে সরকারের উন্নয়ন ও বিএনপি’র অপশাসনের চিত্র তুলে ধরুন: প্রধানমন্ত্রী শাকিব-বুবলীর বিচ্ছেদও হয়েছে? মন্দির-মণ্ডপে আ. লীগ কর্মীদের পাহারা বসানোর নির্দেশ কাদেরের নভেম্বরে হচ্ছে না ডিসি সম্মেলন বিএনপি হাঁটুভাঙা নয়, আ. লীগেরই কোমর ভেঙেছে: ফখরুল গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন শুরু ১৭ অক্টোবর পিস্তল ঠেকিয়ে দুবাইফেরত ব্যক্তির সোনা ছিনতাইয়ে দুই পুলিশ হাতিয়ায় দুই জলদস্যু বাহিনীর গোলাগুলিতে নিহত ৩ ধামরাইয়ে মাদক বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে একট্টা এলাকাবাসী, ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেপ্তারের দাবি

সাভার পরিবহণে সূচনা : নয় মাস জামিনে থেকে ১০ ডাকাতির ‘হোতা’ রতন

  • আপডেট : সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২
  • ১০৭ বার দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : টাঙ্গাইলের মহাসড়কে চলন্ত বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ২১ বছর বয়সী যে তরুণকে ‘মূল পরিকল্পনাকারী ও নেতৃত্বদাতা’ বলা হচ্ছে, সেই রতন হোসেন ডাকাতির দুই ঘটনায় আড়াই বছর জেল খেটে জামিনে ছিলেন। সাভার পরিবহনের একটি বাসে ডাকাতির মাধ্যমে তার হাতেখড়ি।

জামিনে বেরিয়ে গত নয় মাসে বাসাবাড়ি ও যানবাহনে অন্তত দশটি ডাকাতির ঘটনায় তিনি জড়িত হন বলে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ভাষ্য।

টাঙ্গাইলের ঘটনায় রতনসহ মোট ১০ জনকে ঢাকা, গাজীপুর ও সিরাজগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করার পর সোমবার ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাবের পক্ষ থেকে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়।

গত ২ অগাস্ট রাতে কুষ্টিয়া থেকে ঢাকাগামী ঈগল এক্সপ্রেসের একটি বাসে যাত্রী বেশে উঠে পড়া ডাকাত দল যাত্রীদের মারধর করে তাদের সঙ্গে থাকা জিনিসপত্র লুট করে। বাসে থাকা এক নারীকে দলবেঁধে ধর্ষণ করে তারা। এ তাণ্ডব চলে পরদিন ভোর পর্যন্ত। এক পর্যায়ে বাসটি দুর্ঘটনায় পড়লে ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

সেদিন কী ঘটেছিল তার বিবরণ র‌্যাবের সংবাদ সম্মেলনে তুলে ধরেন এ বাহিনীর আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

র‌্যাব বলছে, রতন টাঙ্গাইলের মধুপুরের মজিবুর রহমানের ছেলে। প্রাথমিকের গণ্ডি পার হতে না পারলেও স্নাতক ‘পাস’ পরিচয় দিয়ে তিনি অনার্স পড়ুয়া এক ছাত্রীকে বিয়ে করেন। পরে ওই ছাত্রীর পরিবার তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যাওয়ায় রতন ত্রিশোর্ধ্ব আরেক নারীকে বিয়ে করেন।

খন্দকার আল মঈন বলেন, বিভিন্ন বাসের হেলপারি করা রতন ডাকাতি করছে ২০১৮ সাল থেকে এবং এর আগে সে দুবার জেলে খেটেছে।

“শুরুতে তারকাঁটার মত বস্তু রাস্তায় ফেলে সাভার পরিবহনের একটি বাসে ডাকাতির মাধ্যমে তার হাতেখড়ি। সেই ডাকাতির ঘটনায় করা মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে জেলেও যায় সে। এর পরে জামিনে বের হয়ে ২০২০ সালে অটো ‘ছিনতাই’ করার সময় সে মানুষের হাতে ধরা পড়ে আবারও জেলে যায়।

মঈন বলেন, দুই দফায় আড়াই বছর জেলে ছিলেন রতন। নয় মাস আগে তিনি জামিনে বেরিয়ে আসেন।

“তারপর থেকে সে ১০টির বেশি ডাকাতি করেছে। টাঙ্গাইল মহাসড়কে ঈগল এক্সপ্রেসের বাসে ডাকাতির কয়েকদিন আগে তারা আলিফ ও ঠিকানা পরিবহনের দুটি বাস ডাকাতি করে। টাঙ্গাইলে ডাকাতি ঘটনার নেতৃত্ব ও মূল পরিকল্পনায় ছিলেন রতন।“
র‌্যাবের মুখপাত্র জানান, ডাকাত দলে রতনের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ সহযোগী হলেন ২১ বছর বয়সী জীবন, তাকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পেশায় গাড়ির হেলপার জীবনের গ্রামের বাড়ি নীলফামারী। গাজীপুরের তাকওয়া পরিবহনে ডাকাতির অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে, তিনিও দুইবার জেলে গেছেন।

গ্রেপ্তার বাকিরা হলেন: মো. আলাউদ্দিন (২৪), সোহাগ মণ্ডল (২০), খন্দকার মো. হাসমত আলী দীপু (২৩), বাবু হোসেন জুলহাস (২১), আব্দুল মান্নান (২২), নাঈম সরকার (১৯), রাসেল তালুকদার (৩২), এবং আসলাম তালুকদার রায়হান (১৮)।
র‌্যাব কর্মকর্তা মঈন বলেন, “এই চক্রের সদস্যরা ট্রাকে নিয়মিত ডাকাতি বা চাঁদাবাজি করে থাকে। বিশেষ করে ঢাকায় মুরগি দিয়ে যেই খালি ট্রাকগুলো ফিরে যায়, এই চক্রের টার্গেট হয় ওই ট্রাকগুলো। তারা তাদের ট্রাকের কর্মীদের কাছ থেকে মুরগিবেচা টাকা বেশ কয়েকবার ছিনিয়ে নিয়েছে।“

জামিনে বেরিয়ে এই ডাকাতরা বারবার একই অপরাধে জড়াচ্ছে কেমন করে- সেই প্রশ্নে র‌্যাবের মুখপাত্র বলেন, “তারা এই লাইনে এক্সপার্ট। এদের অনেকের সঙ্গে অনেকের পরিচয় হয় কারাগারে থাকা অবস্থায়। বের হয়ে তারা পুনরায় ডাকাতি পেশায় যুক্ত হচ্ছে।“

এই চক্রটির আগের ডাকাতির ঘটনাগুলোতে ধর্ষণ ছিল না কি জানতে চাইলে মঈন বলেন, “তাদের বক্তব্য অনুযায়ী গত নয় মাসে রতনের ১০টি ডাকাতির ঘটনার মধ্যে এবারই প্রথম তারা ধর্ষণের ঘটনা ঘটিয়েছে।“

ঈগল এক্সপ্রেসের ওই বাসে কতোজনকে ধর্ষণ করা হয়েছে জানতে চাইলে র‌্যাবের মুখপাত্র বলেন, “পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার তিনজনের জবানবন্দিতে পাওয়া গেছে যে সেখানে একাধিক ধর্ষণের মতো ঘটনা ঘটেছে। সেটা হয়ত আরও তদন্তে বের হবে, এখানে কী হয়েছে।

ঘটনার সঙ্গে ঈগল এক্সপ্রেসের বাসটির কোনো কর্মীর সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে কি না জানতে চাইলে মঈন বলেন, “না, এরকম কিছু পাওয়া যায়নি।”

রাতের বাসে ডাকাতি ঠেকাতে যাত্রী ও বাস মালিকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন র‌্যাবের এই কর্মকর্তা। মাঝপথে কোনো যাত্রীকে বাসে না ওঠানোর পাশাপাশি টিকেট কাটার সময় যাত্রীদের মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর সংরক্ষণের পরামর্শ দেন তিনি।

 

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

সত্যের সন্ধানে নির্ভীক কিছু তরুণ সংবাদকর্মী নিয়ে আমাদের পথচলা

তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ডিএফপি’র মিডিয়া তালিকাভুক্ত ঢাকা জেলার একমাত্র স্থানীয় পত্রিকা