1. dailyfulki04@gmail.com : dfulki :
  2. fulki04@yahoo.com : Daily Fulki : Daily Fulki
সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০২:০৯ অপরাহ্ন

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধিতে শরিকরাও ক্ষুব্ধ: ভেঙে যেতে পারে ১৪ দল-মহাজোট

  • আপডেট : রবিবার, ৭ আগস্ট, ২০২২
  • ৩৩ বার দেখা হয়েছে
জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়েছেন আওয়ামী লীগের শরিকরা। একমাত্র আওয়ামী লীগ ছাড়া কোনো রাজনৈতিক দলই এই অস্বাভাবিক রেকর্ড মূল্যবৃদ্ধিকে মেনে নিতে পারেনি। ফলে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বড় ধরনের সংকটে পড়েছে এবং অনেকটাই একঘরে হয়ে পড়েছে। সামনের দিনগুলোতে পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক জোটগুলো ভেঙে যেতে পারে বলেও কেউ শঙ্কা প্রকাশ করছেন। তবে আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন যে, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি বা এই সমস্ত বিষয় নিয়ে জোটের মধ্যে মতপার্থক্য হতে পারে, জোটের অনেকেই একমত হতে নাও পারেন কিন্তু এই নিয়ে জোট ভাঙার কোনো শঙ্কা নেই।
গত কিছুদিন ধরেই আওয়ামী লীগের আদর্শিক জোট ১৪ দলের মধ্যে নানারকম সংকট বিরাজ করছে। ১৪ দলের অনেক নেতাই আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নীতি-কৌশলের প্রকাশ্য সমালোচনা করছেন। বিশেষ করে সাম্প্রতিক সময়ে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, লোডশেডিং নিয়ে ১৪ দলের নেতারা প্রকাশ্যে সরকারের সমালোচনা করেছেন। নড়াইলে সংখ্যালঘুর ঘটনার প্রেক্ষিতে ১৪ দলের নেতারা ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন। এরকম পরিস্থিতির মধ্যে অস্বাভাবিক ভাবে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি হচ্ছে, এটিকে ১৪ দলের শরিকরা গ্রহণ করতে পারছে না। এই মূল্যবৃদ্ধিকে তারা সমর্থনও করছে না বলে জানা গেছে। আওয়ামী লীগের ১৪ দলীয় শরিকদের অন্তত দুজন নেতা বলেছেন, এই মূল্যবৃদ্ধি মেনে নেয়া যায় না এবং মূল্যবৃদ্ধি কোনো সমস্যার সমাধান নয়। আওয়ামী লীগের ১৪ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা রাশেদ খান মেনন বলেছেন যে, যেভাবে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি করা হয়েছে তা অস্বাভাবিক, অগ্রহণযোগ্য। এতে সাধারণ মানুষের চাপ বাড়বে। তিনি এটিও বলেছেন যে, সাধারণ মানুষের সুবিধা-অসুবিধার কথা বিবেচনা না করেই এই মূল্যবৃদ্ধি করা হয়েছে।
মূল্যবৃদ্ধির ব্যাপারে ১৪ দলের আরেক শরিক জাসদও সমালোচনা করেছে। জাসদের নেতারা প্রকাশ্যেই এইভাবে মূল্যবৃদ্ধিকে হঠকারী সিদ্ধান্ত হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। জাসদের একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা বলেছেন, যখন মানুষের জীবনে নাভিশ্বাস অবস্থা, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে ঠিক সেই সময় এভাবে মূল্যবৃদ্ধি অস্বাভাবিক ঘটনা। জাসদের ওই নেতা বলেছেন, কিছুদিন ধরেই সরকার জনগণের সুযোগ-সুবিধার কথা তোয়াক্কা না করে একের পর এক বিভ্রান্তিকর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করছেন, এটি সরকারকে জনবিচ্ছিন্ন করে ফেলছে। আর এ কারণেই এখন জাসদ তাদের পৃথক অবস্থান জানাবে বলেও তারা বলেছেন।
অন্যদিকে, ১৪ দলের বড় শরিক মহাজোটের অন্যতম জাতীয় পার্টি এইভাবে মূল্যবৃদ্ধিকে অবাস্তব, হটকারি এবং অন্যায্য হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তারা বলেছেন যে, এরকম মূল্যবৃদ্ধির জনগণের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলবে। এই মূল্যবৃদ্ধি মেনে নেয়া যায়না। মহাজোট মূলত একটি নির্বাচনী জোট এবং মহাজোটে আওয়ামী লীগের প্রধান শরিক হলো সংসদে বিরোধী দল জাতীয় পার্টি। জাতীয় পার্টি এই জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে কর্মসূচি করারও চিন্তাভাবনা করছে বলে জানা গেছে। এরকম পরিস্থিতিতে এই মূল্যবৃদ্ধি আওয়ামী লীগের শরিকদের মধ্যে বড় ধরনের টানাপড়েন সৃষ্টি করেছে। একমাত্র আওয়ামী লীগ ছাড়া কেউই মূল্যবৃদ্ধিকে সমর্থন করতে পারছে না। তবে আওয়ামী লীগেরও অনেক নেতা আনুষ্ঠানিকভাবে না হলেও গোপনে এই মূল্যবৃদ্ধিকে সরকারের জন্য একটা বড় ধরনের নেতিবাচক পদক্ষেপ হিসেবে মনে করছেন।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

সত্যের সন্ধানে নির্ভীক কিছু তরুণ সংবাদকর্মী নিয়ে আমাদের পথচলা

তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ডিএফপি’র মিডিয়া তালিকাভুক্ত ঢাকা জেলার একমাত্র স্থানীয় পত্রিকা