1. dailyfulki04@gmail.com : dfulki :
  2. fulki04@yahoo.com : Daily Fulki : Daily Fulki
বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ইতালির বাংলাদেশ দূতাবাসে ভাংচুর, ১৫ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট না পেলে দলবদ্ধ আত্মহত্যার হুমকি হাজারও প্রবাসীর রাজধানীতে আওয়ামী লীগের ‘শোডাউন’, যানজটে দুর্ভোগ জাতিসংঘ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক, যেসব তথ্য দিল বায়ুদূষণে ২০১৯ সালে ঢাকায় ২২ হাজার মানুষের মৃত্যু চুরি হওয়া রিকশা খুঁজতে গিয়ে চোর চক্র গড়ে তোলেন কামাল ‘হাওয়া’ সিনেমার পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা সাভারে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে পাশবিক নির্যাতন অভিযোগ আশুলিয়ায় কমার্স ব্যাংকে ডাকাতি ও খুন: ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড হাইকোর্টে বহাল সিংগাইরে মরণ ফাঁদে প্রাণ গেল মাদরাসা ছাত্রীর! যাত্রাবাড়ীতে ইউনিট আওয়ামী লীগ সভাপতি খুন

গাজীপুরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে ছেলের পরিকল্পনায় ঘুমন্ত বাবাকে হত্যা

  • আপডেট : মঙ্গলবার, ১৯ জুলাই, ২০২২
  • ৬৩ বার দেখা হয়েছে

গাজীপুরে বৃদ্ধ গিয়াস উদ্দিন হত্যার রহস্য উন্মোচন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে ছেলে ও ভাতিজার পরিকল্পনায় ঘুমন্ত অবস্থায় তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) বিকেলে গ্রেফতার দুজনকে আদালতে তোলা হলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন তারা। এ সময় হত্যাকাণ্ডে নিহতের ছেলে ও ভাতিজার জড়িত থাকার কথাও জানান।

গ্রেফতাররা হলেন- ময়মনসিংহের পাগলা থানার কোকসাইর এলাকার কেরামত আলীর ছেলে মো. আলম (৩৮) একই জেলার ত্রিশাল উপজেলার কুষ্টিয়া এলাকার মো. আবু কালামের ছেলে মো. আরাফাত (২৬)। এদের মধ্যে সোমবার রাত দেড়টার দিকে কোকসাইর এলাকা থেকে আলমকে এবং মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে গাজীপুরের শ্রীপুর থানাধীন কেওয়া এলাকা থেকে আরাফাতকে গ্রেফতার করা হয়।

পিবিআইর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাকছুদের রহমান বলেন, প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে ছেলে আবুজর ও ভাতিজা সবুজের পরিকল্পনায় ২০২০ সালের ১১ ডিসেম্বর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় গিয়াস উদ্দিনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পিবিআইকে গ্রেফতার আলম ও আরাফাত হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর আদালতে তোলা হলে তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। একই সঙ্গে হত্যাকাণ্ডে জড়িত অন্যদেরও নাম প্রকাশ করে। হত্যার পরিকল্পনা ও অন্য আসামিদের কার কী ভূমিকা ছিল তার বর্ণনা দেয়। পরে আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বাকি আসামিদেরও গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

সত্যের সন্ধানে নির্ভীক কিছু তরুণ সংবাদকর্মী নিয়ে আমাদের পথচলা

তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ডিএফপি’র মিডিয়া তালিকাভুক্ত ঢাকা জেলার একমাত্র স্থানীয় পত্রিকা