1. dailyfulki04@gmail.com : dfulki :
  2. fulki04@yahoo.com : Daily Fulki : Daily Fulki
বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:১৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ইতালির বাংলাদেশ দূতাবাসে ভাংচুর, ১৫ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট না পেলে দলবদ্ধ আত্মহত্যার হুমকি হাজারও প্রবাসীর রাজধানীতে আওয়ামী লীগের ‘শোডাউন’, যানজটে দুর্ভোগ জাতিসংঘ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক, যেসব তথ্য দিল বায়ুদূষণে ২০১৯ সালে ঢাকায় ২২ হাজার মানুষের মৃত্যু চুরি হওয়া রিকশা খুঁজতে গিয়ে চোর চক্র গড়ে তোলেন কামাল ‘হাওয়া’ সিনেমার পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা সাভারে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে পাশবিক নির্যাতন অভিযোগ আশুলিয়ায় কমার্স ব্যাংকে ডাকাতি ও খুন: ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড হাইকোর্টে বহাল সিংগাইরে মরণ ফাঁদে প্রাণ গেল মাদরাসা ছাত্রীর! যাত্রাবাড়ীতে ইউনিট আওয়ামী লীগ সভাপতি খুন

ধামরাইয়ে গুম নাটকে ফেঁসে গেলেন বড়ভাই

  • আপডেট : সোমবার, ১৮ জুলাই, ২০২২
  • ৭৫ বার দেখা হয়েছে

ধামরাইয়ের কামারপাড়া গ্রামের আপন দুই ভাই বাদশা মিয়া ও আফাজ উদ্দিনের মধ্যে ভিটেমাটি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। এ বিরোধের জের ধরে ছোটভাইকে ফাঁসাতে গিয়ে গুম নাটক করে শেষমেশ ফেঁসে গেলেন বড়ভাই।

রোববার রাতে গ্রেফতার হয়েছেন গুম নাটকের মূলহোতা বড়ভাই বাদশা মিয়া। ৫ মাস আত্মগোপন থাকার পর তিনি গ্রেফতার হয়েছেন।

নিজে আত্মগোপন করে স্ত্রীকে বাদী করে আপন ছোটভাই আফাজ উদ্দিন ও সাবেক ইউপি মেম্বার রাইজুদ্দিন বেপারীসহ কতিপয় গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে গুম মামলা দায়ের করেন বড়ভাই বাদশা মিয়া। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গ্রামবাসী ও ভুক্তভোগীরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, উক্ত গ্রামের মৃত পিয়ার আলী বেপারীর দুই ছেলে মো. বাদশা মিয়া ও আফাজ উদ্দিনের মধ্যে ভিটেমাটি নিয়ে চরম বিরোধ চলে আসছে দীর্ঘ দিন ধরে। পক্ষে-বিপক্ষে চলে আসছে মামলা। এরই ধারাবাহিকতায় বাদশা মিয়া চলতি বছরের মার্চ মাসের প্রথম দিকে ছোটভাইকে ফাঁসাতে আত্মগোপন করেন। এরপর তার সহধর্মিণী আনোয়ারা বেগমকে বাদী করে একটি গুম মামলা দায়ের করেন ছোটভাই আফাজ উদ্দিন ও সাবেক ইউপি মেম্বার মো. রাইজুদ্দিন বেপারীসহ কতিপয় গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে।

মামলাটি পুলিশ ইনভেস্টিগেশন ব্যুরোতে (পিবিআই) তদন্তাধীন রয়েছে। রোববার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিনি বাড়িতে প্রত্যাবর্তন করলে ছোটভাই আফাজ উদ্দিন ধামরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. আতিকুর রহমান আতিককে অবহিত করেন। এরপর এসআই মো. বদিউজ্জামান রাত ৭টার দিকে সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে কামারপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে বাদশা মিয়াকে গ্রেফতার করেন। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশি সূত্র।

আফাজ উদ্দিন বলেন, জাল দলিল করে আমার ভিটেমাটি দখলের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে আমার বড়ভাই বাদশা মিয়া আমাকেসহ গ্রামের মেম্বার ও মাতবরদের বিরুদ্ধে আত্মগোপন থেকে তার স্ত্রীকে দিয়ে গুম মামলা করে হয়রানি করে। এর কঠোর বিচার ও শাস্তি চাই।

এ ব্যাপারে সাবেক ইউপি মেম্বার মো. রাইজুদ্দিন বেপারী বলেন, গ্রাম্য সালিশি বৈঠকে ন্যায় কথা বলতে গিয়ে সাজানো গুম মামলার আসামি হয়েছি। আমরা গ্রামবাসী ও ভুক্তভোগীরা বাদশা মিয়ার বিচার ও শাস্তি দাবি করছি।

এসআই বদিউজ্জামান বলেন, বাদশা মিয়া নিজে আত্মগোপন করে ছোটভাই ও সাবেক মেম্বারসহ নিরীহ লোকজনকে ফাঁসাতে সাজানো গুম মামলা দায়ের করে। তাকে না পাওয়া গেলে এ নিরীহ লোকজন অহেতুক হয়রানির শিকার হতো। তাকে গ্রেফতার করতে পারায় নিরীহ মানুষজন এ সাজানো মিথ্যা গুম মামলা থেকে রেহাই পাবেন।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

সত্যের সন্ধানে নির্ভীক কিছু তরুণ সংবাদকর্মী নিয়ে আমাদের পথচলা

তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ডিএফপি’র মিডিয়া তালিকাভুক্ত ঢাকা জেলার একমাত্র স্থানীয় পত্রিকা