1. dailyfulki04@gmail.com : dfulki :
  2. fulki04@yahoo.com : Daily Fulki : Daily Fulki
বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ইতালির বাংলাদেশ দূতাবাসে ভাংচুর, ১৫ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট না পেলে দলবদ্ধ আত্মহত্যার হুমকি হাজারও প্রবাসীর রাজধানীতে আওয়ামী লীগের ‘শোডাউন’, যানজটে দুর্ভোগ জাতিসংঘ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক, যেসব তথ্য দিল বায়ুদূষণে ২০১৯ সালে ঢাকায় ২২ হাজার মানুষের মৃত্যু চুরি হওয়া রিকশা খুঁজতে গিয়ে চোর চক্র গড়ে তোলেন কামাল ‘হাওয়া’ সিনেমার পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা সাভারে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে পাশবিক নির্যাতন অভিযোগ আশুলিয়ায় কমার্স ব্যাংকে ডাকাতি ও খুন: ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড হাইকোর্টে বহাল সিংগাইরে মরণ ফাঁদে প্রাণ গেল মাদরাসা ছাত্রীর! যাত্রাবাড়ীতে ইউনিট আওয়ামী লীগ সভাপতি খুন

মানিকগঞ্জে ধর্ম নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে এলাকাবাসির মানববন্ধন

  • আপডেট : রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০২২
  • ৮০ বার দেখা হয়েছে

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি : মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলায় শওকত আলী নামে এক ব্যক্তি ধর্ম ও নামাজ নিয়ে কটূক্তি করায় তার বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী। রোববার (১৭ জুলাই) দুপুরে উপজেলার ধামশ্বর নতুন বাজারে ঘণ্টাব্যাপী এই মানববন্ধন অংশগ্রহণ করেন ধামশ্বর, কাকরাখী, লক্ষ্মীদিয়াসহ আরো কিছু গ্রামের সর্বস্তরের জনগণ।
মানববন্ধনে কাকরাখী গ্রামের বিশিষ্ট ব্যক্তি শিহাব উদ্দিন (৬২) বলেন, কাকরাখী গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে শওকত আলী বাজারে চায়ের দোকানে মুসল্লিদের কটূক্তিমুলক কথা বলার কারণে আমরা গ্রামবাসী মানববন্ধন করে তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।
ধামশ্বর জামে মসজিদের ইমাম আব্দুর রহিম বলেন, মসজিদে আজান দেয়া, কোরআন মাজীদ তেলাওয়াত নিয়ে শওকত আলী বিভিন্ন ধরনের কটুূক্তি করেন। মুসল্লিদের বলেন নামাজ পড়ে শয়তানে। এছাড়াও ইসলাম নিয়ে বিভিন্ন ধরনের খারাপ কথা বলেন তিনি। তাই প্রশাসন যাতে অতি তাড়াতাড়ি শওকতকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনে, তার দাবি জানাই।
ধামশ্বর গ্রামের মজনু মিয়া বলেন, নামাজ পড়ে মসজিদ থেকে বের হলে শওকত নানা ধরনের কটূক্তিমুলক কথা বলে। মসজিদে কোরান তেলাওয়াত, গজল চালালে মসজিদে গিয়ে বন্ধ করে দেয়ার কথাও বলে শওকত।
ধামশ্বর বাজারের ব্যবসায়ী নুরে আলম বলেন, যে কাজগুলো আমরা খারাপ মনে করি, সেসব কাজের সাথে জড়িত থাকে শওকত আলী। তার নামে হরিরামপুর থানায় মাদক মামলাও আছে।
ধামশ্বরা নতুন বাজারের চা বিক্রেতা রহিতোন বেগম বলেন, শুক্রবার জুমার দিনে মসজিদে আজান দিলে দোকানের টিভি বন্ধ করে দিয়েছি। তখন শওকত আলী বলেন টিভি বন্ধ করা যাবে না, চলবে। তার কথায় টিভি চালু না করায় তিনি দোকানের সামনে এসে মুসল্লিদের বিভিন্ন রকমের কটূক্তিকর কথা বলেন।
তবে এমন অভিযোগের কথা অস্বীকার করে শওকত আলী জানান, আমি এমন কোন কথা বলিনি। আমি মুসলমানের ছেলে, আমি কেন ইসলামবিরোধী কথা বলব। একটা মহল আমাকে গ্রামবাসীর কাছে খারাপ বানাতে এমনটা করেছে।
দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জাকারিয়া হোসেন বলেন, শওকত আলীকে নিয়ে গ্রামের মধ্যে কিছু সমস্যার কথা শুনেছি। তবে এ বিষয়ে কেউ কোনো অভিযোগ দেয়নি।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

সত্যের সন্ধানে নির্ভীক কিছু তরুণ সংবাদকর্মী নিয়ে আমাদের পথচলা

তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ডিএফপি’র মিডিয়া তালিকাভুক্ত ঢাকা জেলার একমাত্র স্থানীয় পত্রিকা