1. dailyfulki04@gmail.com : dfulki :
  2. fulki04@yahoo.com : Daily Fulki : Daily Fulki
বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:১৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
ইতালির বাংলাদেশ দূতাবাসে ভাংচুর, ১৫ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট না পেলে দলবদ্ধ আত্মহত্যার হুমকি হাজারও প্রবাসীর রাজধানীতে আওয়ামী লীগের ‘শোডাউন’, যানজটে দুর্ভোগ জাতিসংঘ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক, যেসব তথ্য দিল বায়ুদূষণে ২০১৯ সালে ঢাকায় ২২ হাজার মানুষের মৃত্যু চুরি হওয়া রিকশা খুঁজতে গিয়ে চোর চক্র গড়ে তোলেন কামাল ‘হাওয়া’ সিনেমার পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা সাভারে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে পাশবিক নির্যাতন অভিযোগ আশুলিয়ায় কমার্স ব্যাংকে ডাকাতি ও খুন: ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড হাইকোর্টে বহাল সিংগাইরে মরণ ফাঁদে প্রাণ গেল মাদরাসা ছাত্রীর! যাত্রাবাড়ীতে ইউনিট আওয়ামী লীগ সভাপতি খুন

সিংগাইরে পুলিশের হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো দু“গ্রুপের সংঘর্ষ

  • আপডেট : শনিবার, ১৬ জুলাই, ২০২২
  • ৩১০ বার দেখা হয়েছে

মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নের ভূমদক্ষিন গ্রামে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে গভীর রাতে দু’গ্রুপের মুখোমুখি সংঘর্ষ পুলিশের হস্তক্ষেপে বন্ধ হয়।এ ঘটনায় এক গ্রুপ থানায় এজাহার দায়ের করলেও প্রতিপক্ষ আরেক গ্রুপ কোর্টে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রমতে প্রকাশ।তবে গতকাল শনিবার দু’গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে।

জানা যায়, বিয়ের গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে গত ১৪ জুলাই রাত সোয়া ১টার দিকে ভুমদক্ষিন গ্রামের আক্কাছ আলীর বাড়িতে হামলা চালায় একই গ্রামের প্রতিপক্ষ গ্রুপের পলাশ,কোহিনুর কাজী,মিজান কাজী, শহীদ কাজী ও সাইফুলসহ ৪০/৪৫ জনের সশস্র একটি গ্রুপ। এ সময় ওই বাড়িতে হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে আহত করে লুটপাট চালাতে থাকে তারা। খবর পেয়ে সিংগাইর থানার ধল্লা-ফোর্ডনগর পুলিশ বক্সের ইনচার্জ এসআই মোঃ রফিকুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দু‘পক্ষের সংঘর্ষ বন্ধ করেন।এ সময় আক্কাছের গ্রুপের ৪ জন ও তার প্রতিপক্ষ গ্রুপের ১ জনকে পুলিশের গাড়িতে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। আক্কাছ জানান ,ঘটনার আগেরদিন আমার ভাগ্নির গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে পলাশ খার নেতৃত্বে ১০/১২ জনের একটি গ্রুপ মদপান করে হামলা চালায়। এ ঘটনার জের ধরে তার পরদিন গভীর রাতে আমার বাড়িতে হামলা চালিয়ে নগদ টাকাসহ স্বর্নালংকার লুটপাট করে। আমি থানায় খবর দিলে পুলিশ আমাদের উদ্ধার করে আহতদের তাদের গাড়িতে করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

অপরদিকে, প্রতিপক্ষ গ্রুপের লোকজন এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,পলাশকে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরের দিন গভীর রাতে মারামারির ঘটনা ঘটে।সরকারি দলের প্রভাব খাটিয়ে থানা পুলিশ আমাদের মামলা নিচ্ছেন না। এ জন্য তারা আদালতে মামলা করবেন বলেও জানান।
এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার ধল্লা-ফোর্ড নগর পুলিশ বক্সের ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় গ্রুপের মুখোমুখি সংঘর্ষ বন্ধ করে আহতদেরকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করি। তবে হামলার শিকার আক্কাছের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দিলেও তার তদন্ত চলছে। এখনও পর্যন্ত জড়িত কেউ গ্রেফতার হননি বলেও তিনি জানান।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর

সত্যের সন্ধানে নির্ভীক কিছু তরুণ সংবাদকর্মী নিয়ে আমাদের পথচলা

তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন ডিএফপি’র মিডিয়া তালিকাভুক্ত ঢাকা জেলার একমাত্র স্থানীয় পত্রিকা