আশুলিয়া প্রতিনিধি : সাভার উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের কবিরপুর এলাকায় প্রেমিকার হাতে হাবিবুল বাশার (জয়) নামে এক কলেজ পড়ুয়া প্রেমিক খুন হয়েছে। এ ঘটনায় কাশিমপুর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।
জানা যায়, প্রেমের সম্পর্কে ফাটল সৃষ্টি হওয়ায় প্রেমিকা ক্ষুব্ধ হয়ে প্রেমিককে মারধর করে রাস্তার পাশে ফেলে রাখে।পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে নিকটস্থ হাসপাতালে তাকে ভর্তি করলে চিকৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করে।
এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মোঃ জুলহাস (৩৮) বাদী হয়ে নিহতের প্রেমিকা নিলুফা ইয়াসমিন ঝুমুর-এর প্রধান সহযোগী মোঃ সজিব হোসেনকে ১ নং ও ঝুমুরকে ২ নং আসামী করে অজ্ঞাতনামা আরও ৩/৪ জনের বিরুদ্ধে কাশিমপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।
জানা যায়, আশুলিয়ার আলহাজ্ব আব্দুল মান্নান ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেনীর বিজ্ঞান বিভাগের মেধাবী ছাত্র মোঃ হাবিবুল বাশার জয় (২০) এর সাথে কবিরপুর অঞ্জনা মডেল হাই স্কুলের দশম শ্রেনীর ছাত্রী নিলুফা ইয়াসমিন ঝুমুর এর সাথে প্রায় দুই বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। জয় আশুলিয়ার কবিরপুরের মোঃ রহিজ উদ্দিন এর ছেলে এবং ঝুমুর একই এলাকার মোঃ নুরুল ইসলাম নুরুর কন্যা। কিছুদিন যাবত উভয়ের সম্পর্কের অবনতি ঘটলে ঝুমুর প্রেমিক জয়ের সাথে খারাপ ব্যাবহার শুরু করে। এক পর্যায়ে গত ১১ সেপ্টেম্বর আনুমানিক দুপুর ১২.০০ ঘটিকার সময় ঝুমুর সুকৌশলে জয়কে কবিরপুর বাসস্ট্যান্ডে ডেকে নেয়।
পরে পূর্বপরিকল্পিতভাবে ঝুমুর এর সহযোগী কালিয়াকৈর থানাধীন জাঙ্গালিয়া পাড়ার মোঃ জাহাঙ্গীর এর ছেলে সজিব হোসেন (২৪)  ৩/৪ জন সহযোগীসহ ঠিকানা পরিবহন এর একটি বাস নিয়ে আসে এবং কৌশলে তাকে গাড়িতে উঠিয়ে নবীনগর এর দিকে যাত্রা করে। পথিমধ্যে তাকে মারধর করে এবং আনুমানিক ১২.২০ ঘটিকার সময় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের কাশিমপুর থানাধীন তেতুইবাড়ী,  চ্যানেল আই -এর বাংলোর সামনে পৌছালে প্রেমিকা ঝুমুর, সজিব ও অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন মিলে জোড়পূর্বক জয়কে জানালা দিয়ে ফেলে দেয় এবং তারা গাড়ি থামিয়ে উক্ত স্থান হতে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এতে নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে  জখম হয় এবং মাথায় গুরুতর আঘাত পায়। পরে স্থানীয় লোকজন ধরাধরি করে তাকে নিকটস্থ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল কেপিজে বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করে।
অবস্থা গুরুতর দেখে ডাক্তার দ্রুত তার মস্তিস্কের অপারেশন করে আইসিইউতে ভর্তি করে। উক্ত হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় ১৩ সেপ্টেম্বর আনুমানিক রাত ১.০০ ঘটিকার সময় ছেলেটি মৃত্যু বরণ করে।
এ বিষয়ে নিহতের স্বজনরা কাশিমপুর থানা পুলিশকে অবহিত করলে কাশিমপুর থানা পুলিশ হাসপাতাল পরিদর্শন করে রিপোর্ট প্রস্তুত করেন এবং নিহতের লাশ মর্গে প্রেরন করেন। নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী ঘটনার সুস্ঠু তদন্তের ভিত্তিতে আসামীদেরকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবী জানান।