বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যু ঘিরে নতুন নতুন তথ্য বেরিয়ে আসছে। এবার সুশান্ত ও তার প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে প্রকাশ্যে এলো নতুন তথ্য।

সুশান্তের কল রেকর্ড ঘেঁটে জানা গেছে, গত ৮ জুন থেকে ১৪ জুন (সুশান্তের মৃত্যুদিন) পর্যন্ত রিয়া এবং সুশান্তের মধ্যে কোনো মেসেজ (বার্তা) বা ফোনকল আদানপ্রদান হয়নি। এর আগে মুম্বাই পুলিশ জানিয়েছিল, মৃত্যুর আগের রাতে সুশান্ত যে দুজনকে ফোন করেছিলেন তাদের মধ্যে একজন বন্ধু মহেশ শেট্টি এবং অন্যজন রিয়া চক্রবর্তী।

গত ৮ জুন সুশান্তের সাবেক ম্যানেজার দিশা সালিয়ান আত্মহত্যা করেন। একইদিনে সুশান্তের ফ্ল্যাট ছেড়ে নিজের বাড়িতে ওঠেন রিয়া। দিশাকে নিয়েই কি সুশান্তের সঙ্গে ঝামেলা হয়েছিল রিয়ার? এ নিয়ে বাড়ছে ধোঁয়াশা।

জানা গেছে, গত ২০ থেকে ২৪ জানুয়ারি সুশান্তকে প্রায় ২৫ বার ফোন করেছিলেন রিয়া। এই সময়েই ‘রানিদিদি’র কাছে চণ্ডীগড়ে গিয়েছিলেন সুশান্ত। এর আগে সুশান্তের পরিবার দাবি করেছিল, গত বছরের নভেম্বরে সুশান্ত তার দিদির বাড়িতে যেতে চাইলেও যেতে দেননি রিয়া।

এদিকে সুশান্তের বাবার করা এফআইআরে রিয়ার বিরুদ্ধে সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ থাকায় রিয়াকে শুক্রবার ডেকে পাঠিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

শুধু ১৫ কোটি টাকা নয়, রিয়ার নামে মুম্বাইয়ের অভিজাত এলাকায় দুটি ফ্ল্যাট আছে। প্রশ্ন উঠেছে মুম্বাইয়ের অভিজাত এলাকায় দুটি ফ্ল্যাটের মালকিন কী করে হলেন? তার তদন্ত করবে ইডি। আগামী ৭ অগস্ট ইডির মুখোমুখি হবেন রিয়া।

সুশান্তের বাবার অভিযোগ কেবলমাত্র রিয়ার দিকেই। তিনি তার ছেলের প্রেমিকার বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ এনেছেন। তার মধ্যে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অর্থ আত্মসাৎ, নানা রকম হুমকি দিয়ে আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার অভিযোগও রয়েছে।

সুশান্তের বাবার দাবি, রিয়া বুঝতে পেরে গিয়েছিলেন যে সুশান্তের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অর্থ দিন দিন কমছে। এরপর ৮ জুন নগদ অর্থ, অলংকার, ল্যাপটপ, ক্রেডিট কার্ড, পিন নম্বর, পাসওয়ার্ড, গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাগজ এবং চিকিৎসকের রশিদ নিয়ে চলে যায়।

অভিযোগে আরো বলা হয়েছে, সুশান্ত তার বোনকে ফোন করে জানিয়েছিলেন, রিয়া চিকিৎসকের রশিদ মিডিয়াকে দেখিয়ে সুশান্তকে পাগল প্রমাণ করার হুমকি দিয়েছেন। এরপর কেউ তাকে কাজ দেবে না। ৮ জুন সুশান্তের সেক্রেটারি আত্মহত্যা করেন। রিয়াই তাকে সুশান্তের সেক্রেটারি হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে তার ফোনে সুশান্তের নম্বর ব্লক করে দেন রিয়া। তার সেক্রেটারির আত্মহত্যার ঘটনায় তাকে রিয়া ফাঁসাতে পারেন বলে সুশান্ত ভয় পাচ্ছিলেন। কারণ এ বিষয়ে তাকে হুমকি দিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী। এসব কারণেই বিপর্যস্ত হয়ে গিয়েছিলেন সুশান্ত।

এদিকে রিয়া চক্রবর্তীকে এর আগে জেরা করে মুম্বাই পুলিশ জানতে পারে, সাম্প্রতিক ইউরোপ ভ্রমণে সুশান্তের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেছিলেন রিয়া। তার এক দেহরক্ষীকেও বহিষ্কার করেছিলেন তিনি। শুধু তাই নয়, সুশান্তের কোম্পানিতেও শেয়ার ছিল তার এবং তার ভাইয়ের।

গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ে বান্দ্রায় নিজের ফ্ল্যাট থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের দেহ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানায়, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। আত্মহত্যার কারণ অনুসন্ধানের জন্য এখনও পর্যন্ত প্রায় ৪০ জনকে জেরা করেছে মুম্বাই পুলিশ। এদের মধ্যে রিয়া ছাড়াও রয়েছেন পরিচালক মহেশ ভাট, সঞ্জয়লীলা বানসালিসহ বলিউডের নামজাদা ব্যক্তিরা।