Home খেলা আইপিএলের রাস্তা পরিষ্কার করে দিলো অস্ট্রেলিয়া ও উইন্ডিজ

আইপিএলের রাস্তা পরিষ্কার করে দিলো অস্ট্রেলিয়া ও উইন্ডিজ

63

সাধারণত ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আসর বসে এপ্রিল-মে মাসে। তখন আবার আন্তর্জাতিক সূচিতে থাকে না অথবা রাখা হয় না কোনো দ্বিপাক্ষিত সিরিজ। হয়তো কাকতালীয়ভাবে কিংবা ক্রিকেটারদের আইপিএলে খেলার সুযোগ দিতেই সে সময়টাতে কোনো দেশই সিরিজ রাখে না।

তবে এবারের পরিস্থিতি পুরোপুরি ভিন্ন। করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় ছয় মাস পিছিয়ে গেছে আইপিএলের আসর। শুধু আইপিএল নয়, বিশ্ব ক্রিকেটের প্রায় ৯৫ শতাংশ সূচিই স্থগিত করা হয়েছে এই মহামারীর কারণে। আইপিএলের নতুন দিনক্ষণ ঠিক করা হয়েছে সেপ্টেম্বরের ১৯ থেকে নভেম্বরের ১০ তারিখ পর্যন্ত।

কিন্তু এই পরিবর্তিত সূচির আইপিএল চলাকালীন সময়ে ছিলো অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ফলে দ্বিপাক্ষিক সিরিজমুক্ত আইপিএল আয়োজনের সম্ভাবনা এবার ছিলো না। তবে সেই পথ করে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া ও উইন্ডিজের ক্রিকেট বোর্ড।

স্থগিত করা হয়েছে অসি-ক্যারিবীয়দের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। আগামী ৪, ৬ ও ৯ অক্টোবর টাউন্সভিল, কেয়ার্নস ও গোল্ড কোস্টে তিন টি-টোয়েন্টি হওয়ার কথা ছিল। এটি মূলত ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরুর আগে শেষ প্রস্তুতিমূলক সিরিজ। কিন্তু বিশ্বকাপ এক বছর পিছিয়ে যাওয়ায়, এ সিরিজও আয়োজনের যৌক্তিকতা দেখছে না দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ড।

যার ফলে এখন আর আইপিএলের সময় অর্থাৎ ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত কোনো আন্তর্জাতিক সূচি রইলো না। যদিও আগামী মাসে সেপ্টেম্বর সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশ দলের। সেখানে অক্টোবরের শুরুর দিকে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিন ম্যাচ খেলবে টাইগাররা। তবে এ সিরিজের সূচি নির্ধারণ হয়নি এখনও।

এদিকে আন্তর্জাতিক সূচি না থাকলেও, আইপিএলের প্রথম দুই দিন ‘ঝামেলা’ করতে পারে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ। যা শেষ হবে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর। অবশ্য এতে খুব বেশি ক্ষতি হওয়ার কথা নয় আইপিএলের। কেননা শ্রীলঙ্কার মাত্র দুইজন ক্রিকেটার রয়েছেন এবারের আসরে। মুম্বাইয়ে লাসিথ মালিঙ্গা এবং ব্যাঙ্গালুরুতে খেলার কথা রয়েছে ইসুরু উদানার।