টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বকনিষ্ট সেঞ্চুরিয়ান মোহাম্মদ আশরাফুল। বাংলাদেশের সাবেক এই তারকা ব্যাটসম্যান নিজের অভিষেকেই ২০০১ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে এখনও পর্যন্ত রেকর্ডবুকে নামটি লিখে রেখেছেন।

আশরাফুল যার রেকর্ড ভেঙেছিলেন, তিনি হলেন জিম্বাবুয়ের হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। টেস্ট ক্রিকেটে সর্বকনিষ্ট হিসেবে সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি।

আশরাফুল এবং মাসাকাদজা- পরবর্তীতে দু’জনই নিজ নিজ দলকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তবে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আশরাফুলের কিছুদিন আগে নাম লিখিয়েছেন জিম্বাবুইয়ান মাসাকাদজা। গত বছর জিম্বাবুয়ের এই ব্যাটসম্যান সব ধরনের ফরম্যাট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন। আশরাফুল অবসরের ঘোষণা না দিলেও দীর্ঘদিন ধরেই নানা কারণে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে তিনি। এমনকি আদৌ আর জাতীয় দলে ফিরতে পারবেন কি না তিনি, সন্দেহ রয়েছে।

২০০১ সালের ২৭ জুলাই হিথ স্ট্রিকের হাত থেকে টেস্ট ক্যাপ পরেন মাসাকাদজা। অভিষেকে প্রতিপক্ষ ছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৩১ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল জিম্বাবুয়ে। মাসাকাদজা করেছিলেন ৯ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ করে ৩৪৭ রান।

Ashraful

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে প্রতিরোধ গড়েন জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানরা এবং আজকের এই দিনে (২৯ জুলাই) ওয়ান ডাউনে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি করে বসেন তিনি। ৩১৬ বল খেলে তিনি করেন ১১৯ রান। ৯ উইকেট হারিয়ে ৫৬৩ রানে ইনিংস ঘোষণা করে জিম্বাবুয়ে। জয়ের জন্য ৩৪৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১ উইকেটে ৯৮ রান তুলতেই দিন শেষ হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ফলে ম্যাচ হলো ড্র।

১৭ বছর ৩৫২ দিন বয়সে সর্বকনিষ্ট হিসেবে অভিষেকেই সেঞ্চুরি করে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতে নেন মাসাকাদজা। তার অসাধারণ সেঞ্চুরিতেই মূলতঃ অবিশ্বাস্যভাবে টেস্ট ড্র করে নেয় জিম্বাবুয়ে।

কিন্তু মাসাকাদজা খুব বেশি ভাগ্যবান হিসেবে রেকর্ডটা ধরে রাখতে পারেননি। কারণ, তার রেকর্ড গড়ার মাত্র ৪০/৪১ দিনের মাথায় নতুন রেকর্ড গড়ে বসেন বাংলাদেশের মোহাম্মদ আশরাফুল। ৬ সেপ্টেম্বর কলম্বোর সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে লঙ্কান বোলার চামিন্দা ভাস, মুত্তিয়া মুরালিধরন, জয়সুরিয়া, রুচিরা পেরেরাদের সামনে বুক চিতিয়ে লড়াই করে সেঞ্চুরি করেছিলেন আশরাফুল।

২১২ বল খেলে ১১৪ রান করেছিলেন আশরাফুল। ১৭ বছর ৬১ দিন বয়সে সর্বকনিষ্ট টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান হিসেবে নাম লেখান আশরাফুল।

ভারতের ব্যাটসম্যান পৃত্থি শ টেস্ট অভিষেকে সেঞ্চুরি করেছিলেন ১৮ বছর ৩২৯দিন বয়সে। ভারতের হয়ে সর্বকনিষ্ট এবং সব মিলিয়ে টেস্টে চতুর্থ সর্বকনিষ্ট সেঞ্চুরিয়ান হলেন তিনি। হ্যামিল্টন মাসাকাদজা মোট ৩৮টি টেস্ট খেলেন। ওয়ানডে খেলেছেন ২০৯টি এবং টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ৬৬টি।