গাজীপুররে পারিজাত কোনাবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ওয়াটারএইড বাংলাদেশের আর্থিক ও কারিগরী সহযোগিতায় সোমবার বিকালে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে পোষাক শিল্পে কর্মরত নারী কর্মী মাঝে ৫শ হাইজিন (লাক্স সাবান-৩টি, তিব্বত সাবান-৩টি, মাক্স-২টি, স্যানিটারি ন্যাপকিন-৩টি, ব্লিচিং পাউডার, ডেটল, টুথ পেস্ট ও পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট) প্যাকেট বিতরণ করা হয়।

এসময়ে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন এর মহিলা কাউন্সিলর মিসেস বিণু বারেক, ভার্কের প্রজেক্ট ম্যানেজার বাবুল মোড়লসহ অন্যান্য কর্মীবৃন্দ।

কর্মসূচীর মূল উদ্দেশ্য, কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতির মধ্যে আমাদের নির্ধারিত কর্মএলাকায় রপ্তানিমুখী তৈরী পোষাক শিল্পে নিয়োজিত কর্মীদের বসবাসকৃত এলাকায় করোনাভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধে বাংলাদেশ সরকারের গৃহিত পদক্ষেপসমূহ জানানো এবং স্বাস্থ্য বিধি সম্পর্কে জ্ঞাত করা।

এছাড়া ১৯৫০০ জন উপকারভোগীকে (পোষাক শিল্পে কর্মরত নারী কর্মী) হাইজিন প্যাকেজ বিতরণ করা; ৮০টি কমিউনিটিতে হ্যান্ড ওয়াশিং ডিভাইস স্থাপন করা; ২টি কমিউনিটি ক্লিনিক/ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে হ্যান্ড ওয়াশিং ডিভাইস স্থাপন করা; ৮০টি কমিউনিটিতে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা ক্যাম্পেইন করা; ইত্যাদি।