গর্ভকালীন সময়ে সবারই একটু বাড়তি সচেতন থাকা উচিত। তারপরও এখন একে করোনা তার উপর বর্ষাকাল। নানা রোগের উপদ্রব বাড়ে এই সময়। তাই গর্ভবতী নারীদের নিতে হবে বাড়তি সতর্কতা। কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে এই সময়।

কারণ বর্ষার স্যাঁতস্যাতে আবহাওয়াতে ব্যাকটেরিয়া-ভাইরাস সক্রিয় হয়ে ওঠে, পাশাপাশি পোকামাকড়ের প্রজননের সময়ও এটি। আর এই সমস্ত কারণেই সংক্রমণ দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ে, যা মা এবং শিশুর জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক হতে পারে। জেনে নিন নিয়মগুলো-

> এইসময় গর্ভবতী নারীদের উচিত খাদ্য ও পানীয়ের পরিচ্ছন্নতার দিকে বিশেষ মনোযোগ দেয়া। বাইরের কোনো কিছু খাওয়ার আগে তা বিশুদ্ধ কিনা সেদিকে নজর রাখা উচিত। এই মৌসুমে গর্ভবতী নারীদের প্রয়োজনীয় ভিটামিন, খনিজ, ক্যালসিয়াম, প্রোটিন এবং ক্যালোরিযুক্ত  খাবার গ্রহণ করা উচিত। বর্ষাকালে, খাওয়া এবং পান করার ক্ষেত্রে অসাবধানতা আপনার স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে।

> বিশুদ্ধ ও ফিল্টার করা পানি পান করুন। এইসময় খাবার পানির ক্ষেত্রে খুব বেশি সচেতন থাকতে হবে। কারণ পানি থেকে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। বেশিরভাগ চিকিৎসকদের মতে, গর্ভবতী নারীদের উচিত বিশুদ্ধ পানি পান করা। আর এইসময় ডিহাইড্রেশনের সমস্যাও খুব দেখা যায়। তাই প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন।

> বাইরের বা ঘরের হোক ভাজাপোড়া খাবার একেবারেই খাবেন না। বিশেষ করে তা যদি হয় স্ট্রিট ফুড। এসব খাবার থেকে সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ে। তাই গর্ভাবস্থায় যতটা সম্ভব রাস্তার খাবার থেকে দূরে থাকুন। এমনিতেই গর্ভাবস্থায় অনাক্রম্যতা স্বাভাবিকের চেয়ে কম থাকে। তাই  সহজেই সংক্রমণের শিকার হন। এইসময় তাজা ফল এবং বাড়িতে তৈরি তাজা খাবার খাওয়া উচিত।

> ঘর বাড়ি পরিষ্কার রাখুন সব সময়। বর্ষায় স্যাঁতসেঁতে জায়গায় ব্যাকটেরিয়া জন্মে দ্রুত। বাথরুম পরিষ্কার করার জন্য ভাল মানের জীবাণুনাশক ব্যবহার করুন। এই সময়ে আপনি সহজেই যে কোনো সংক্রমণের শিকার হতে পারেন। যা আপনার এবং আপনার শিশুর জন্য মারাত্মক হতে পারে।

বৃষ্টির নোংরা পানি থেকে ইনফেকশেন হওয়ার ঝুঁকি থাকে। তাই আপনার হাত ও পা পরিষ্কারের ক্ষেত্রেও বিশেষ যত্ন নিন। সমস্ত কাজ হাত দিয়েই করা হয়, তাই হাত পরিষ্কার থাকা খুব জরুরি। নোংরা হাত মুখে দেবেন না। বাইরে থেকে আসার পরে সর্বদা হাত, পা ধুয়ে নিন এবং বাইরে বেরোনোর ​​সময় হ্যান্ড স্যানিটাইজার আপনার সঙ্গে রাখুন। খালি পায়ে বাইরে হাঁটবেন না।

> বর্ষার সময় আবহাওয়া স্যাঁতস্যাঁতে হওয়ার কারণে, বৃষ্টির পরে আর্দ্রতা বাড়তে শুরু করে। যার কারণে বেশি ঘাম হয়। গর্ভবতী নারীদের অতিরিক্ত ঘাম হলে ডিহাইড্রেশনের সমস্যা হতে পারে। এজন্য ঢিলেঢালা আরামদায়ক পোশাক পরুন। সিন্থেটিক পোশাক পরলেও বেশি ঘাম হতে পারে, তাই সিন্থেটিক পোশাক পরা এড়িয়ে চলুন।

সূত্র:বোল্ডস্কাই