প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সতর্কতা মেনেই শুরু করা হচ্ছে ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের ঘরোয়া আসরগুলো। এরই মধ্যে চলছে জার্মানির বুন্দেসলিগা। চলতি মাসের ১১ তারিখ থেকে শুরু হবে স্প্যানিশ লা লিগাও। এছাড়া আগামী ১৭ জুন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ এবং ২০ জুন মাঠে গড়াতে পারে ইতালিয়ান সিরি আ’ও।

করোনার কারণে কোন টুর্নামেন্টেইs মাঠে দর্শক প্রবেশের অনুমতি নেই। অর্থাৎ রুদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে দর্শকশূন্য গ্যালারিতে হবে সকল ম্যাচ। এমন খালি গ্যালারিতে বিশেষ কারণ ছাড়া আগে কখনও খেলেননি ফুটবলাররা। ফলে মাঠে প্রতিপক্ষের চ্যালেঞ্জের বাইরেও, পারিপার্শ্বিক এই চ্যালেঞ্জও জয় করতে হবে তাদের।

তবে স্পেনের ক্লাব ফুটবলারদের জন্য রয়েছে খানিক স্বস্তির খবর। লা লিগার সবগুলো ম্যাচেই থাকবে ভার্চুয়াল দর্শক। মিডিয়াপ্রো থ্রিডি টেকনোলজি ব্যবহারের মাধ্যমে খালি গ্যালারিগুলো ভার্চুয়াল ছবি এবং শব্দ দিয়ে বাস্তবিক একটা রূপ দেয়া হবে।

টিভিতে খেলা দেখানোর সময় বেশিরভাগ সময়ই দেখানো হবে মূল ক্যামেরায়, যেখানে থাকবে না কোন ভার্চুয়াল প্রভাব। পিচসাইড ক্যামেরার মাধ্যমে রেকর্ড করা হবে ভার্চুয়াল দর্শকসহ সকল ছবি এবং শব্দ। ভার্চুয়াল দর্শকদের শব্দ ব্যবহারের ক্ষেত্রে ফিফা-২০ ভিডিও গেম থেকে নেয়া হবে এসব আওয়াজ। এছাড়া নির্দিষ্ট স্টেডিয়ামে হওয়া আগের ম্যাচগুলো থেকেও নেয়া হবে দর্শকদের আওয়াজ।

এদিকে টিভির দর্শকরা কোনভাবে ম্যাচ দেখবেন অর্থাৎ ভার্চুয়াল দর্শকসহ নাকি পুরোপুরি দর্শকশূন্য গ্যালারির- সেটি তারা নিজেরাই ঠিক করতে পারবে। টিভি ব্রডকাস্টাররা একসঙ্গে দুইটি অপশনই খোলা রাখবেন। এজন্য প্রতিটি স্টেডিয়ামে প্রয়োজনীয় টেকনোলজি স্থাপনের ব্যাপারে রাজি হয়েছে সবগুলো ক্লাব।

এদিকে করোনা পরবর্তী সময়ে ফুটবল মাঠে ফেরানোর লক্ষ্যে দুই রাউন্ডের সূচি প্রকাশ করেছে লা লিগা কর্তৃপক্ষ। যা চলবে ১১ জুন থেকে ১৮ জুন পর্যন্ত। সব দলের জন্যই রাখা হয়েছে দুইটি করে ম্যাচ। পরের ম্যাচগুলোরও তারিখ চূড়ান্ত হয়ে আছে। তবে সময় এখনও জানানো হয়নি।

এ সূচি অনুযায়ী আগামী ১৩ জুন দিবাগত রাত ২টায় করোনা পরবর্তী সময়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচ (আদতে লিগের ২৮তম ম্যাচ) খেলতে নামবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। তবে নিজেদের মাঠে নয়। বার্সাকে আতিথ্য দেবে মায়োর্কা।

চির প্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের ম্যাচ পরদিন। অর্থাৎ ১৪ জুন বাংলাদেশ সময় রাত ১১টা ৩০ মিনিটে নামবে রিয়াল। তাদের প্রতিপক্ষ এইবার, খেলাও হবে এইবারের মাঠে। একইদিন বিকেল ৫টায় অ্যাটলেটিকো বিলবাওয়ের মুখোমুখি হবে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

দুই রাউন্ডের জন্য ঘোষিত সূচিতে নিজেদের হোম গ্রাউন্ড সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে কোন ম্যাচ খেলবে না রিয়াল। মূলত লিগের বাকি কোন ম্যাচই বার্নাব্যুতে খেলবে না তারা। এর বদলে যুব দলের মাঠ ভালদেবাসে অন্যান্য দলগুলোকে স্বাগত জানাবে তারা।

এ দফায় ঘোষিত সূচি অনুযায়ী আগামী ১৬ জুন দিবাগত রাত ২টায় লেগানেসের বিপক্ষে নিজেদের ঘরের মাঠে ন্যু ক্যাম্পে দ্বিতীয় ম্যাচটি খেলবে বার্সেলোনা। রিয়ালের দ্বিতীয় ম্যাচ ১৮ জুন দিবাগত রাত ২টায়, প্রতিপক্ষ ভ্যালেন্সিয়া।

লিগে এখনও পর্যন্ত পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে বার্সেলোনা। ২৭ ম্যাচ শেষে ১৮ জয় ও ৪ ড্রতে তাদের সংগ্রহ ৫৮ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে ১৬ জয় ও ৮ ড্রতে রিয়ালের ঝুলিতে রয়েছে ৫৬ পয়েন্ট। তিন নম্বরে থাকা সেভিয়ার পয়েন্ট ৪৭।