ধামরাইয়ে ডাকাত সন্দেহে সুটারগানসহ আটক ৪

0
94

ধামরাই প্রতিনিধি : ধামরাইয়ে ডাকাত সন্দেহে সুটারগানসহ চার পাখি শিকারীকে আটকের পর গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করেছে এলাকাবাসী। শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে ধামরাইয়ের চৌহাট চকপাড়া এলাকার পরিত্যক্ত ভিটা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটকরা হলেন টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার হারিয়া গ্রামের খবির উদ্দিনের ছেলে সফিউল হাসান (৩০), নকিব উদ্দিনের ছেলে রাসেল (৩২), সাহেব আলীর ছেলে বাতেন (৩৫) ও জরিপ আলীর ছেলে পরেশ আলী (৩৩)।

আরো পড়ুন : আশুলিয়ায় বাড়ি ভাড়া পরিশোধ করতে না পারায় স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে…


স্থানীয় এলাকাবাসী ডাকাত সন্দেহে সুটারগানসহ টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলার হারিয়া এলাকার চার যুবককে আটক করে। রোববার বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ নিরাপত্তা আইনে ধামরাই থানা পুলিশ বাদী হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার পর আদালতে প্রেরণ করেছে। পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে চৌহাট চকপাড়া এলাকায় একটি পরিত্যক্ত ভিটায় কয়েকজন যুবকের শব্দ শুনতে পান স্থানীয়রা। পরে এলাকাবাসী সেখানে গেলে তাদের হাতে সুটারগান দেখে ডাকাত বলে সন্দেহ করে। এক পর্যায়ে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এসময় ধাওয়া দিয়ে তাদের আটক করে। এখবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সেখানে শত শত লোক জড়ো হয়। খবর পেয়ে ধামরাইয়ের কাওয়ালিপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র ও থানা থেকে কয়েক দফায় অভিযান চালিয়ে জনরোষ থেকে তাদের উদ্ধার করে পুলিশ।

আরো পড়ুন : সাভারে চলন্ত ট্রাকে আগুন

ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ‘আটককৃতদের বিরুদ্ধে মির্জাপুর থানায় কোন মামলা আছে কিনা যাচাই করা হয়েছে। কিন্তু স্বভাব চরিত্র ভালবিধায় এবং তারা পাখি শিকারের কথা স্বীকার করায় বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ নিরাপত্তা আইনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে’।