ব্রায়ান লারাও চেয়েছিলেন ওয়ার্নারের ৪০০ হোক

0
55

১৯৯৪ সালে ব্রায়ান লারা টেস্টের এক ইনিংসে করেছিলেন ৩৭৫ রান। যেটা নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছিল তখন। ৩৭৫! চোখ কপালে ওঠার মত অবস্থা। লারার সেই রেকর্ড ভাঙতে পারছিলেন না আর কেউ। ১৯৯৭ সালে শ্রীলঙ্কার জয়সুরিয়া খেলেছিলেন ৩৪০ রানের ইনিংস। সেদিন অনেকেই মনে করেছিল, লারার রেকর্ড বুঝি ভেঙে গেলো!

অবশেষে ২০০৩ সালে এসে অস্ট্রেলিয়ার ম্যাথ্যু হেইডেন ভেঙে দিয়েছিলেন লারার সেই রেকর্ড। টেস্ট ক্রিকেটের এক ইনিংসে তিনি খেলে ফেললেন ৩৮০ রানের ইনিংস। পার্থে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হেইডেন সেই রেকর্ড গড়ার পর তাকে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন লারাও।

কিন্তু ক্রিকেটের বরপুত্র মনে মনে হয়তো বিষয়টা মেনে নিতে পারেননি। রেকর্ড থেকে তার নাম মুছে যাওয়াটাকে তিনি চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিয়েছিলেন। যে কারণে, মাত্র ৬ মাসের মাথায় আবারও রেকর্ড ভাঙলেন লারা। ম্যাথ্যু হেইডেনকে পেছনে ফেলাই নয় শুধু, টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ৪০০ রানের ঐতিহাসিক মাইলফলক স্পর্শ করে ফেললেন ব্রায়ান লারা।

সেন্ট জোন্সে লারার সেই রেকর্ড দেখে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব বিস্ময়ে হতবাক হয়ে গিয়েছিল। ২০০৬ সালে শ্রীলঙ্কার মাহেলা জয়াবর্ধনেকে ৩৭৪ রান পর্যন্ত গিয়ে থেমে যেতে হয়েছিল। পারেননি লারার রেকর্ডের কেশাগ্র পর্যন্ত ছুঁতে।

অ্যাডিলেডে পাকিস্তানের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার চলমান টেস্টে ডেভিড ওয়ার্নারের অপরাজিত ৩৩৫ রানের ইনিংসটি আবারও সেই আলোচনা উস্কে দিলো। চেষ্টা করলে কি পারতেন ওয়ার্নার, ব্রায়ান লারাকে ছুঁতে? হয়তো বা পারতেন, কিংবা পারতেন না। কিন্তু সেই সুযোগই তো তিনি পেলেন না। অপরাজিত ৩৩৫ রানে থাকতেই ইনিংস ঘোষণা করে দিলেন অসি অধিনায়ক টিম পেইন।

অনেকেই মনে করেন, আর এক কিংবা দেড় সেশন সুযোগ পেলে এবং উইকেটে টিকে থাকতে পারলে ওয়ার্নারের পক্ষে হয়তো সম্ভব হতো লারাকে ছোঁয়া কিংবা তার রেকর্ড ভেঙে আরও সামনে এগিয়ে যাওয়া।

সেই মনে করাদের তালিকায় ছিলেন খোদ ব্রায়ান লারা নিজেও। তিনি প্রতিক্ষায় ছিলেন, ওয়ার্নার যদি ৪০০ করে ফেলেন, তাহলে সবার আগে লারা’ই এই অসি ওপেনারকে অভিনন্দন জানাবেন। সে কথা লারা নিজেই প্রকাশ করলেন আজ।

লারা নিজেই জানিয়েছেন, তিনি চেয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার তার রেকর্ডটি ভাঙুক। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর সেটা সম্ভব হলো না। ওয়ার্নারকে অভিনন্দনও জানানো হলো না লারার।

তবে অসি অধিনায়ক টিম পেইন একটা সুযোগ করে দেন ওয়ার্নারকে। তিনি চেয়েছেন, সাবেক অসি অধিনায়ক স্যার ডন ব্র্যাডম্যান এবং মার্ক টেলরের ৩৩৪ রানের রেকর্ডটি পার হয়ে যাক ওয়ার্নার। সেটা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ইনিংস ঘোষণা করে বসেন অসি অধিনায়ক।

অথচ ব্রায়ান লারা খুব করে চেয়েছিলেন, রেকর্ডটা ভাঙুক। তিনি বলেন, ‘রেকর্ড গড়াই হয়, ভাঙার জন্য। যখন সে স্যার ডন ব্র্যাডম্যানকে পেছনে ফেলে দিলেন, তখন খুব করে চেয়েছিলাম, যেন আমার রেকর্ডটাও সে ভাঙতে পারে।’

তবুও ওয়ার্নারের প্রশংসা করতে ভোলেননি লারা। তিনি বলেন, ‘ইনিংসটা ছিল দারুণ। আমি দেখছি, অস্ট্রেলিয়ানদের কাছে জয়টাই সবচেয়ে বড়। এছাড়া ওখানকার (অ্যাডিলেডের) আবহাওয়াও একটা বড় চিন্তার কারণ।’