আশুলিয়ায় মাদ্রসার শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আটক

0
98

আশুলিয়া প্রতিনিধি : আশুলিয়ায় ১২ বছরের এক মাদ্রসার শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করার অপরাধে অভিযুক্ত মাদ্রসার প্রধান শিক্ষক মুসলেউদ্দিনকে আটক করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার দুপুরে আশুলিয়া থানা পুলিশ ঘোষবাগ এলাকায় হাকীমুনন্নেসা মহিলা মাদ্রসা থেকে ওই শিক্ষককে আটক করে থানা নিয়ে যায়।

আরো পড়ুন :আশুলিয়ায় ১২শ’ পিছ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক


আটককৃত প্রধান শিক্ষক শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী এলাকার মহিউদ্দিনের ছেলে মুসলেউদ্দিন। তিনি ওই মাদ্রসায় বসবাস করে প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, হাকিমুনন্নেসা মহিলা মাদ্রসার ১২ বছরের শিক্ষার্থী আবাসিক থেকে ওই মাদ্রসায় পড়াশোনা করতেন। সোমবার বিকালে শিক্ষক মুসলে উদ্দিন ওই শিশুটিকে ডেকে নিয়ে তার কক্ষে দরজা আটকিয়ে ধর্ষণ করে। এসময় ওই ভুক্তভোগি মেয়েটি বাসায় গিয়ে তার পরিবারকে বিষয়টি জানান। পরে মেয়েটির পরিবার স্থানীয় ব্যক্তিসহসহ জনপ্রতিনিধিদের ঘটনাটি অবগত করলে তারা থানায় মামলা করার পরামর্শ দেন।

আরো পড়ুন : সৌদিতে নির্যাতিত আশুলিয়ার গৃহবধূ সুমিকে দেশে ফেরানোর নির্দেশ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর


ভুক্তভোগির পিতা বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় মাদ্রসার প্রধান শিক্ষককে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করলে পুলিশ এ অভিযোগের ভিক্তিতে মাদ্রসার প্রধান শিক্ষক মুসলে উদ্দিনকে মঙ্গলবার দুপুরে মাদ্রসা থেকে আটক করে। এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানা পুলিশের এসআই কামরুল ইসলাম জানান, অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। তিনি প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের কথা শিকার করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন তাকে বুধবার কোর্টে সোপর্দ করা হবে। ভুক্তভোগি মেয়েটিকে পরিক্ষা নিরীক্ষার জন্য জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।