আশুলিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ?

0
61

আশুলিয়া প্রতিনিধি : আশুলিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্র ইয়াসিন আরাফাত সাকিব (১৩) নিখোঁজ না, গুম হয়েছে পরিবারের সদস্যরা কেউ বলতে পারছে না। ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি নিখোঁজ ডাইরী হয়েছে। সাকিব নিখোঁজ না, গুম হয়েছে পরিবারের সদস্যরা কিছুই জানেন না। তাকে না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। ২৩ অক্টোবর, বুধবার বেলা ২টায় আশুলিয়ার তাঁজপুর এলাকার দোতলা মসজিদ সংলগ্ন মাদ্রাসায় যাওয়ার পথে সে নিখোঁজ হয়। ঘটনায় ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার আশুলিয়া থানায় জিডি (নং-২০৫৮) করেন সাকিবের পিতা আবুল কালাম।

আরো পড়ুন :সাভারে আবাসিক ফ্লাটে অসামাজিক কার্য্যকলাপ, ৪ জনকে কারাদন্ড

ইয়াসিন আরাফাত সাকিব চাঁদপুর জেলার কচুয়া থানাধীন জগৎপুর এলাকার আবুল কালাম ও রাহিমা আক্তার লাকি’র ছেলে। সে আশুলিয়ার তাঁজপুর এলাকার দোতলা মসজিদ সংলগ্ন ইয়াকুবের বাড়িতে পিতা-মাতার সাথে ভাড়া থেকে ওই মাদ্রাসায় কুরআনের ১০ পারা হিফজকারি হিসেবে পড়াশুনা করতো। ৪ ভাইবোনের মধ্যে সে সকলের বড়।

তার উচ্চতা অনুমান ৪ ফুট ৩ ইঞ্চি, গায়ের রং ফর্সা, মুখমন্ডল গোলাকার, মাথায় কালো ছোট চুল, হালকা-পাতলা গড়নের। পরনে কপি কালারের পাঞ্জাবী ও পায়জামা এবং সাদা টুপি রয়েছে।

আরো পড়ুন : আশুলিয়া থানা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মইনুলসহ ১৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

এ বিষয়ে সাকিবের পিতা আবুল কালাম বলেন, তার ৪ ছেলে মেয়ে কে সে মাদ্রাসায় লেখাপড়া করান। সাকিব সকলের বড়। সে অত্যন্ত বিনয়ী এবং মেধাবী। পরিবারের কারো সাথে এবং মাদ্রাসায়ও কোন ঝামেলা হয়নি তার। সে বাসা থেকে বের হয়ে মাদ্রাসায় যায়নি। কোন আত্মীয় স্বজনের বাসায়ও যায়নি। সে নিখোঁজ না গুম তা তারা কিছুই বলতে পারছেন না।

আরো পড়ুন : আশুলিয়া থানা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মইনুলসহ ১৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ওই গ্রামের পার্শ্ববর্তি ধনাইদ, গোরাট ও ইউসুফ মার্কেট এলাকা থেকে অজ্ঞাত মলম পার্টির হাতে ৩ জন অটোচালক নিখোঁজ হয়ে রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে বাসায় ফিরেছে। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে মাত্র হাফ কিলোমিটার দূরত্বে থাকা টাঙ্গাইল রেসিডেনসিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রকে ১ মাস আগে অপহরণকারিরা নিয়ে যায়। তাকে বিমানবন্দর রেল স্টেশন থেকে পথচারীরা উদ্ধার করে ফিরিয়ে দিয়েছে আশুলিয়া থানায়।