দোহারে অস্ত্রসহ আ.লীগ নেতার স্ত্রী আটক

0
172

দোহার-নবাবগঞ্জ (ঢাকা) সংবাদদাতা : ঢাকা জেলার দোহার উপজেলার রাইপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ঝিন্টু বেপারীর স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে অস্ত্রসহ আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ঢাকা জেলা কার্যালয়ের একটি দল।

আরও পড়ুন >> হেমায়েতপুর-ভাটারা রুটে নতুন মেট্রোরেল প্রকল্প অনুমোদন

রোববার বিকেল ৫টায় দোহার উপজেলা সভাকক্ষে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সুব্রত সরকার শুভ সাংবাদিকদের জানান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে বোরবার বেলা ১২টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ এলাকার আজিজ বেপারীর ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা ঝিন্টুর বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

আরও পড়ুন >> আমিনবাজার ইউপি সদস্যসহ মাদক মামলায় ৩ জনের ১০ বছরের কারাদন্ড

এ সময় ঘরের আলমিরা থেকে দুইটি বিদেশি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি ও একটি হ্যান্ডকাপ উদ্ধার করা হয়। এসময় ঝিন্টুর স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর দোহার থানায় অস্ত্র আইনে ঝিন্টু বেপারী ও স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে আসামী করে মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান ঐ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন >> সাভারে আ. লীগ নেতা মজিদ হত্যা মামলার আসামী সুজাত গ্রেফতার

এ ঘটনার পরপরই একই এলাকার সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সফিকুল ইসলাম ছেন্টুর বাড়িতেও অভিযান পরিচালনা করা হয়।

সুব্রত সরকার শুভ সাংবাদিকদের আরও জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাদক ব্যবসায়ীদের যে তালিকা রয়েছে সে তালিকার ঝিন্টু বেপারী তালিকাভুক্ত আসামী। তার বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে। আমাদের নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে ঝিন্টুর বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে অস্ত্র, ম্যাগাজিন, গুলি ও হ্যান্ডকাপ উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন >> আশুলিয়ায় অবৈধ হাজার গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন (ভিডিও)

জানা যায়, ঝিন্টু বেপারী দোহার উপজেলার রাইপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নবগঠিত আহবায়ক কমিটির যুগ্ম আাহ্বায়ক।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন দোহার উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিদর্শক দেবনাথ সাহা প্রমুখ।

আরও পড়ুন >> আশুলিয়ায় গ্রেফতারকৃত ১৮ ডাকাতের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি ৮ জনের

একই দিনে, উপজেলার উত্তর জয়পাড়া গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে সবুজ হোসেন রানাকে ইয়াবা সেবনের সরঞ্জামসহ আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) জ্যোতি বিকাশ চন্দ্রের আদালত তাকে ১ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন। এ সময় সরকারি কাজে বাধা প্রদানের অভিযোগে এক নারীকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।