আশুলিয়ায় ডাকাতের হামলায় আহত দীপদাস চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন

0
53

আশুলিয়া প্রতিনিধি : পূজা দেখে ফেরার পথে ডাকাতের হামলায় আহত দীপদাস (২৮) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব মেমোরিয়াল কেপিজে বিশেষায়িত হাসপাতালের আইসিও’তে মারা গেছেন। ওই হামলায় ডাকাত দলের হাতে আরো আহত হয়েছিল নিহত দীপদাসের ছোট ভাই মিঠু দাস (২৩), প্রতিবেশি নিত্য রঞ্জন ওরফে নিতাই দাস (৩৮) ও ভ্যান চালক মনির মিয়া (৪০)।

আরও পড়ুন >>আশুলিয়ায় ডাকাতের হামলায় ৪ যুবক রক্তাক্ত জখম অবস্থায় কোমায় ১ জন

আজ শনিবার বেলা ২টা ৯ মিনিটে দীপদাস ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধী অবস্থায় মারা যায়। এর আগে ০৭ অক্টোবর, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টায় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের আশুলিয়ার কবিরপুর বেতারকেন্দ্র গেট সংলগ্ন এলাকায় চলন্ত ভ্যানে ডাকাত দলের সদস্যরা এ হামলা চালায়। হামলায় দীপদাস মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হন। ৫দিন একটানা অচেতন থাকার পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

ঘটনায় নিহত দীপদাস এর পিতা নিলু দাস বাদি হয়ে আশুলিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। তবে ওই ঘটনায় জড়িত কাউকে এখন পর্যন্ত আটক করতে পারেনি পুলিশ।

আরও পড়ুন >> আশুলিয়ায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ৬০০পিস ইয়াবাসহ আটক ২

নিহতের পিতা নিলু দাস জানান, তার বড় ছেলে নিহত দীপদাসকে আহত করে তার কাছ থেকে ওই দিন ছিনিয়ে নেয় ৩০ হাজার টাকা মূল্যের একটি সাওমী মোবাইল সেট, নদগ ১০ হাজার টাকা, ছোট ছেলে মিঠু দাসের নিকট থেকে ছিনিয়ে নেয় ৫ ভরি ওজনের একটি রূপার চেইন, ভ্যান চালকের কাছ থেকে নেয় একটি বাটন মোবাইল সেট, নিতাই রঞ্জন এর কাছ থেকে ৫ হাজার টাকাসহ তার আশুলিয়ার পল্লীবিদ্যুৎ শাখার এবি ব্যাংকের এটিএম কার্ড ছিনিয়ে নেয় বলেও তিনি জানান।

আরও পড়ুন >> সাভারে ৩ নারী ধর্ষণের শিকার, ধর্ষকরা আটক

এলাকাবাসী জানান, নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের জিরানী-কবিরপুর এলাকা পর্যন্ত প্রায় রাতেই ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। বিভিন্ন সময়ে পরিবহণে ডাকাতি এবং নারীদেরও শ্লীলতাহানির মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনাও ঘটে। ওই এলাকায় পুলিশী টহল জোরদারসহ সংশ্লিষ্টদের ধরতে অভিযান পরিচালনার আহ্বান জানান। ওই এলাকার সাধারণ মানুষের চলাফেরা রাতে আতঙ্কের মধ্যে করতে হয়। পোশাক শ্রমিকদের চরম আতঙ্ক নিয়ে চলাফেরা করতে হয়। বিশেষ করে বেতন পেলে প্রায়ই তাদের ছিনতাইয়ের কবলে পড়তে হয়।

জানতে চাইলে আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ রিজাউল হক বলেন, ডাকাতদের ধরতে বিভিন্ন স্থানে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। শীঘ্রই ডাকাতদের ধরতে পুলিশ সক্ষম হবে।