ধামরাইয়ে স্কুলছাত্রী অপহরণের ঘটনায় আটক ১

0
38

ধামরাইয়ে ইমু আক্তার(১৪) নামে এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের মামলায় মূল অপহরণকারী রাজীবকে গ্রেপ্তার করছে ধামরাই থানা পুলিশ।

আরো পড়ুন : সাভারে কীটনাশক পানে একই পরিবারের তিন শিশু গুরুতর অসুস্থ, হাসপাতালে ভর্তি…

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, স্কুলে যাওয়া আসার সময় পথে দীর্ঘদিন ধরে স্কুলছাত্রী ইমু আক্তারকে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করে আসছিল রাজীব। সে তাকে বিয়ের প্রস্তাবও দিয়েছিল। কিন্তু তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রাজীব ও তার সহযোগীরা ইমু আক্তারকে নানা ভয়ভীতি দেখায়। এরপরও তার কুপ্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় রাজীব তার সহযোগীদের নিয়ে রোববার মোটরসাইকেল ও সিএনজি যোগে ওই স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে।

আরো পড়ুন : সাভারে দুর্নীতির বিরুদ্ধে দুদকের অভিযান

এদিকে প্রাইভেট টিউটরের কাছ থেকে সঠিক সময়ে বাড়িতে না আসায় ইমুর মা ও তার আত্বীয় স্বজন তাকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। একপর্যায়ে তারা জানতে পারেন, প্রাইভেট পড়ে নিজ বাড়িতে আসার পথে ধামরাই থানাধীন শিয়ালকুল ব্রিজের উত্তর পাশের রাস্তা থেকে রাজীব ও তার সহযোগী দুদু মিয়া, (৪৫) মো. আলী ২৪) ও আব্দুল খালেক (২২) মিলে তাকে অপহরণ করেছে।

আরো পড়ুন : ধামরাইয়ে সমাজপতিদের কথা না মানায় দেড় বছর ধরে একঘরে একটি পরিবার

এ ব্যাপারে ইমুর মা মোসাম্মৎ সাজেদা বেগম(৩৩) বলেন, অনেক চেষ্টা করে অপহরণকারীদের সঠিক ঠিকানা জানতে না পেরে ধামরাই থানায় একটি অপহরণ মামলা করি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ধামরাই থানার উপপরিদর্শক আবুল খায়ের মিয়া বলেন, মেয়ের মা বাদী হয়ে থানায় রাজীব ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে একটি অপহরণ মামলা করেন। মামলা নং-১২। পরে আমরা অপহরণকারী রাজীব ও তার সহযোগীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাই।

আরো পড়ুন : সাভারে পরিবহনে ডাকাতির প্রস্ততিকালে ২ ডাকাত আটক

মঙ্গলবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি রাজীব তার বাড়িতে অবস্থান করছে। তখন অভিযান চালিয়ে রাজীবকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসি এবং তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অপহৃত ইমুকে উদ্ধার করি। আসামি রাজীবকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।