বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট আরএফএল’র উদ্যোগে আব্দুর রাজ্জাক ২৫ বছর পর ফিরে পেলো আপনজন

0
26

কক্সবাজার সংবাদদাতা : আজ থেকে দীর্ঘ ২৫ বছর আগে চাঁদপুরের বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের হামাদী গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার ৬৫ বছর বয়সে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান। তিনি গত ৫-৬ মাস যাবৎ উখিয়ায় কুতুবপালং এমএসএফ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। হাসপাতালের হিউমেনিটিরিয়ান বিভাগ গত ২২ আগস্ট বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির কক্সবাজার পারিবারিক যোগাযোগ পুনঃসংযোগ বিভাগকে অবহিত করেন।

আরও পড়ুন >> চন্দ্রযান ২ ব্যর্থ: মোদিকে জড়িয়ে কাঁদলেন ইসরো চেয়ারম্যান

কক্সবাজার পারিবারিক যোগাযোগ পুনঃসংযোগ (আরএফএল) ইনচার্জ ফিল্ড অফিসার হামীম ইসলাম ফিল্ড এসিস্ট্যান্ড আতিকুর রহমান রাব্বিকে রেড ক্রিসেন্ট ইয়ুথ ভলান্টিয়ার সাথে নিয়ে কুতুবপালং এর এমএসএফ হাসপাতালে আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার এর সাথে সাক্ষাৎ করার জন্য বলে পাঠান। সাক্ষাতের পর আব্দুর রাজ্জাকে (ভিকটিম) আংশিক ঠিকানা লিখে দেন।

আরও পড়ুন >> এটিএম বুথ থেকে কৌশলে পিন নম্বর জেনে নেয় ওরা

১৯৮৪ সালে কুমিল্লা জেলা ভাগ হয়ে চাঁদপুর জেলার সৃষ্টি হয়। চাঁদপুর জেলা সৃষ্টি হওয়ার আগেই আব্দুর রাজ্জাক মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান বলে জানান ভিকটিম এর ছেলে মুনির।

আরও পড়ুন >> বিদেশে নারী কর্মী পাঠানোর শীর্ষে ঢাকা, পিছিয়ে পার্বত্য অঞ্চল

সকল তথ্য নিয়ে কক্সবাজার আরএফএল অফিস বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির ন্যাশনাল হেডকোয়াটারস আরএফএল বিভাগ, ঢাকা অফিসকে অবহিত করেন। রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির পারিবারিক পুনঃসংযাগ আরএফএল বিভাগের পরিচালক ইমাম জাফর সিকদার বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে নিয়ে চাঁদপুর রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটকে দ্রুত আব্দুর রাজ্জাকের ঠিকানা ও আত্মীয় স্বজন খুঁজে বের করার নির্দেশনা দেন। পরে চাঁদপুরে রেডক্রিসেন্টের ভলান্টিয়ারসগণ অক্লান্ত পরিশ্রম করে আব্দুর রাজ্জাকের ঠিকানা ও আত্মীয় স্বজন খুঁজে পান।

আরও পড়ুন >> আশুলিয়ায় ধরা খেলেন ভাতিজার হাত ধরে উধাও হওয়া চাচী

বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির আরএফএল বিভাগের পরিচালক ইমাম জাফর সিকদার রেডক্রিসেন্ট আরএফএল কক্সবাজার অফিসকে ভিকটিম আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদারকে কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতাল থেকে মুক্ত করার জন্য সার্বিক নির্দেশনা দেন। পরে ভিকটিম আব্দুর রাজ্জাকে কক্সবাজার আরএফএল অফিস মুক্ত করে রেডক্রিসেন্ট মোটেল রোড অফিসে নিয়ে আসা হয়। সংবাদ পেয়ে কক্সবাজার রেডক্রিসেন্ট পারিবারিক যোগাযোগ পুনংসযোগ বিভাগে ভিকটিম এর ছেলে আত্মীয় স্বজন নিয়ে উপস্থিত হন।

আরও পড়ুন >> এসপি শাহ মিজানের মতো কাজ করে জনগণের মন জয় করতে হবে : ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

গত ৪ সেপ্টেম্বর সন্ধা ৭ টায় রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির কক্সবাজার ইউনিটের ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল আবছার, বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির এইচ আর এর পরিচালক মোল্লা সিরাজুল ইসলাম, সেক্রেটারী আবু হেনা মোস্তফা কামাল, ইউনিট লেবেল অফিসার ইয়াহইয়া বখতিয়ার, ফিল্ড অফিসার হামীম ইসলাম, ফিল্ড এসিট্যান্ট রাব্বি ও রেড ক্রিসেন্ট ইয়ুথ ভলান্টিয়ারগণের উপস্থিতিতে ভিকটিম আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদারকে তার ছেলের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ভিকটিমকে রেডক্রিসেন্ট কক্সবাজার ইউনিটের খরচে বাড়ী পর্যন্ত পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হয়।

আরও পড়ুন >> যে খাবার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করবে

কক্সবাজার ইউনিটের ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল আবছার ও সেক্রেটারী আবু হেনা মোস্তফা কামাল জানান, বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি অতীতে এ ধরনের মানবিক কাজ আরো সম্পন্ন করেছেন।