কাশ্মীরে স্কুল-দোকান খুললেই মাথায় গুলির হুমকি

0
70

৩৭০ ধারা বিলোপের পর ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হওয়ার পথে কাশ্মীর উপত্যকা। নিরাপত্তা বাহিনীর কড়া নজরবন্দির মধ্যেই রাস্তায় বের হচ্ছেন মানুষজন। দোকানপাট অল্পবিস্তর খুলছে। এর মধ্যেই নিজেদের অস্তিত্ব জানান দেওয়ার চেষ্টা করছে কোণঠাসা জঙ্গিরা।

জানা গেছে, কাশ্মীরের সোপোরে এলাকার দোকানদারদের হুমকি দিচ্ছে জঙ্গিরা। হিজবুল মুজাহিদিনের হুমকি, দোকান খোলা যাবে না। গাড়ি বাইরে বের করতে নিষেধ করা হচ্ছে এলাকার ট্যাক্সি চালকদের।

জিনিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উপত্যকায় ৩৭০ ধারা বিলোপের কয়েকদিন পরই শ্রীনগর সহ কাশ্মীরের সব জেলায় স্কুল খোলার নির্দেশ দিয়েছিল প্রশাসন। সেই নির্দেশের পরও বহু স্কুল খোলেনি। কিছু স্কুল খুললেও সেখানে কোনো শিক্ষার্থী বা শিক্ষককে আসতে দেখা যায়নি। সোপোরে বিষয়টি একেবারে অন্যরকম। সেখানে স্কুলগুলোকেও হুমকি দিচ্ছে এলাকার হিজবুল জঙ্গিরা। তাদের স্কুল বন্ধ রাখতে বলা হচ্ছে, রাস্তায় বের হতে নিষেধ করা হচ্ছে মেয়েদের।

হিজবুল মুজাহিদিনের তরফে এক হুমকি চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘উপত্যকার মানুষের স্বাধীনতা শেষ হয়ে গেছে। এর বিরুদ্ধে জোরদার লড়াইয়ের প্রয়োজন। এলাকার যেসব মানুষ দোকান খোলা রাখছেন তারা মানুষের ভাবাবেগে আঘাত করছেন। এদের প্রতি আমাদের শেষ হুঁশিয়ারি, এরকম করলে এবার আর পায়ে গুলি নয়, সরাসরি মাথাতেই গুলি করা হবে।’

অন্যদিকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে লস্কর-ই-তৈবাও। এলাকার মানুষজনকে বলা হয়েছে, ‌‘লস্করের সতর্কবার্তা মানা না হলে চরম মূল্য দিতে হবে। মনে করবেন না নীরব রয়েছি বলে আমরা দুর্বল। আমরা জানি কখন আঘাত হানতে হয়।’

সম্প্রতি সোপোরে আপেলবাগান মালিকদের হুমকি দিয়ে গিয়েছে জঙ্গিরা। বলা হয়েছে, আপেল জম্মু ও কাশ্মীরের বাইরে পাঠানো যাবে না। অন্যান্য জেলাতেও একই হুমকি দিয়েছে জঙ্গিরা।