আমিই দিয়েছিলাম ‘অ্যাভাটার’ নামটি

0
100

জেমস ক্যামেরনের বিশ্বখ্যাত ‘অ্যাভাটার’ সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন বলিউড অভিনেতা গোবিন্দ। তবে সিনেমার নাম ‘অ্যাভাটার’ রাখতে তিনিই পরামর্শ দিয়েছিলেন বলে স্বীকার করেছেন তিনি।

রজত শর্মার জনপ্রিয় টিভি শো ‘আপ কি আদালত’-এ উপস্থিত হয়ে বিস্ময়কর কিছু তথ্য প্রকাশ করেছেন বলিউড অভিনেতা গোবিন্দ। তিনি স্বীকার করেছেন, ‘তাল’, ‘গদর’ ও ‘দেবদাস’র মতো ব্লকবাস্টার সিনেমাতে কাজের সুযোগ ছেড়ে দেওয়ার কথা। সবচেয়ে আশ্চর্য হওয়ার বিষয়, পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ ব্লকবাস্টার ‘অ্যাভাটার’ সিনেমায় কাজের সুযোগও ছেড়ে দিয়েছিলেন তিনি।

‘অ্যাভাটার’ সিনেমার কাজ ফিরিয়ে দিলেও জেমস ক্যামেরনকে সিনেমার নামটি উপহার দিয়েছিলেন গোবিন্দ। হিন্দি বা সংস্কৃত শব্দ ‘অবতার’ থেকে ইংরেজি নাম ‘অ্যাভাটার’, যার অর্থ ‘অবতরণকারী’ অর্থাৎ উপর থেকে নিচে নেমে এসেছেন যিনি। 

এ প্রসঙ্গে গোবিন্দ বলেন, ‘সিনেমাটির নাম আমি দিয়েছিলাম। আর এটা তো সুপারহিট হয়ে গেল। আমি তাকে আগেই জানিয়েছিলাম, সিনেমাটি দারুণ ব্যবসা করবে।’

‘অ্যাভাটার’র মতো বিশাল বাজেটের ঐতিহাসিক সিনেমায় কাজ করার সুযোগ পেলে পৃথিবীর বড় বড় অনেক অভিনেতাই একে সৌভাগ্য মনে করে থাকেন। কিন্তু সেরকম কাজ কেন ফিরিয়ে দিয়েছিলেন গোবিন্দ?

গোবিন্দ জানিয়েছেন, জেমস ক্যামেরন তাকে সিনেমাটিতে কাজ করতে প্রস্তাব দেন। কিন্তু এই কাজ করতে হলে তাকে টানা ৪১০ দিন ধরে শুটিং করতে হবে। এতেই ছিল গোবিন্দের অসুবিধা। তাছাড়া, শরীরে রঙ লাগানোর ব্যাপারটাও তার পছন্দ ছিল না।

‘তিনি জানিয়েছিলেন আমাকে ৪১০ দিন ধরে শুট করতে হবে। তাছাড়া, আমার মতো একজন ব্যক্তির সারা গায়ে রঙ লাগানো আমার পক্ষে সম্ভব ছিল না। তাই আমি ক্ষমা চেয়ে নিলাম। কিন্তু আমি বলেছিলাম, সিনেমাটি সুপারহিট হতে যাচ্ছে,’ বলেন গোবিন্দ।

সিনেমাটি সত্যিই সুপারহিট হলো। তাও যেনতেন সুপারহিট নয়। ২০০৯ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ ১০ বছর পৃথিবীর সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমার তকমা গায়ে লাগিয়ে বক্স অফিসে রাজত্ব করেছে ‘অ্যাভাটার’। সম্প্রতি ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’ হলিউড বক্স অফিসে ‘অ্যাভাটার’র সিংহাসন ছিনিয়ে নিয়েছে।