যে জিনিসগুলো অন্যকে ব্যবহার করতে দেয়া উচিত নয়

0
57

শরীরে থাকতে পারে নানা রকম ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাস। যা একজনের থেকে আরেকজনের কাছে ছড়ায়। বিভিন্ন রোগের জীবাণু হাঁচি কাশি ছাড়াও দৈনন্দিন ব্যবহারের নানা জিনিসের মাধ্যমে ছড়াতে পারে । জেনে নিন সুস্থ থাকতে আপনার যে জিনিসগুলো অন্যকে ব্যবহার করতে দেয়া উচিত নয় ।

চিরুনি: হাতের কাছে যেই চিরুনি পান সেটা দিয়েই চুল আঁচড়ান? তাহলে সাবধান হওয়া জরুরী। কারণ, চিরুনির মাধ্যমে উকুন, স্ক্যাবিস ছড়াতে পারে। এমনকি মাথার ত্বকে ইনফেকশনও হতে পারে। অন্য কেউ যদি আপনার চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে ফেলে তাহলে সেটাকে স্যানিটাইজার দিয়ে সাথে সাথে পরিষ্কার করে ফেলুন।

তোয়ালে: অনেকসময় বাড়িতে এক তোয়ালে কয়েকজনকে ব্যবহার করতে দেয়া যায়। একজনের তোয়ালে আরেকজন ব্যবহার করলে ফাঙ্গাল ইনফেকশন এবং ব্যাকটেরিয়া ছড়াতে পারে। ফলে র‍্যাস, ব্রণ এবং কনজাঙ্কটিভাইটিস হতে পারে। চার-পাঁচ বার ব্যবহারের পরেই তোয়ালে ভালো করে ধুয়ে কড়া রোদে শুকিয়ে নেয়া উচিত।

হেডফোন: গান শোনার জন্য অন্যের হেডফোন চেয়ে নেয়ার অভ্যাস অনেকেরই আছে। কিন্তু এই অভ্যাসের কারণে কানে ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ হতে পারে। এতে কানে ইনফেকশন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কেউ যদি আপনার হেডফোন নিয়ে ব্যবহার করে তাহলে সেটা ফেরত পাওয়ার পরে রাবিং অ্যালকোহল দিয়ে ভালো করে মুছে পরিষ্কার করে নিন।

কসমেটিকস: আই লাইনার, লিপস্টিক, কনসিলার, ফাউন্ডেশন, মেকআপ ব্রাশ ইত্যাদি জিনিস অন্য কাউকে ব্যবহার করতে না দেয়াই ভালো। এমনকি মেকআপ স্টোরেও ট্রায়াল দেয়ার জন্য যেগুলো রাখা হয় সেগুলো ব্যবহার করবেন না। নানা জীবাণু ছড়াতে পারে এসব কসমেটিকস এর মাধ্যমে।

নেইল কাটার: হাতের আঙ্গুলে, নখের ফাঁকে থাকে নানা রকম জীবাণু। খুব সাধারণ একটি নেইল কাটার ব্যবহারের মাধ্যমে হতে পারে বড় ইনফেকশন। একজনের নেইল কাটার আরেকজন ব্যবহার করলে ফাঙ্গাল ডিজিজ এবং এইচপিভি হতে পারে।

কানের দুল: কোনো অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগে ম্যাচিং দুল খুঁজে না পেলে বন্ধুর থেকে কিংবা বোনের থেকে নিয়ে পরেন অনেকেই। কিন্তু অন্যের কানের দুল পরলে খুব সহজেই রক্তের মাধ্যমে অসুখ ছড়াতে পারে। তাই অন্যের দুল পরার আগে ভালো করে রাবিং অ্যালকোহল দিয়ে মুছে জীবাণুমুক্ত করে নিন।