টানা ভারী বৃষ্টিতে গ্যাংটক–দার্জিলিংয়ে আটকা পড়ছে পর্যটকরা

0
18

টানা ভারী বৃষ্টিতে ধস নামল দার্জিলিং–এর সেবকের কাছে ১০ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর। ফলে সিকিমের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। কালীঝোরার কাছেও ১০ নম্বর জাতীয় সড়কে ধস নেমেছে। জাতীয় সড়ক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় থমকে গিয়েছে যান চলাচল। জেলা প্রশাসন রাস্তা সাফাইয়ের কাজ শুরু করলেও বৃষ্টিতে সমস্যায় পড়েছেন পূর্ত দপ্তরের কর্মীরা। আটকে পড়েছেন উত্তরবঙ্গ বেড়াতে যাওয়া বহু পর্যটক। তাঁদের অভিযোগ, ধসের সুযোগ নিয়ে খেয়ালখুসি মতোন ভাড়া চাইছে বেসরকারি পরিবহন কোম্পানিগুলি। বুধবার ধস নেমেছিল ৩১ জাতীয় সড়কে মংপং–এর কাছে। ফলে শিলিগুড়ির সঙ্গে ডুয়ার্সের যোগাযোগ থমকে গিয়েছিল।

বৃহস্পতিবার সকালে পূর্ত দপ্তর রাস্তা সাফ করলে ফের ৩৯ নম্বর জাতীয় সড়ক খুলে যায়। বৃষ্টি এবং ধসে উত্তরবঙ্গগামী ট্রেন চলাচল ব্যাহত হয়ে পড়েছে। আলিপুরদুয়ার ডিভিশনে বহু ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় আটকে আরও অনেক ট্রেন। রেলট্র‌্যাক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় আলিপুরদুয়ার–জলপাইগুড়ি ট্রেন চলাচল সম্পূর্ণ স্তব্ধ। কোনওরকম ঝুঁকি না নিয়ে আপাতত দার্জিলিং–এর ঐতিহ্য টয়ট্রেন চলাচল বন্ধ রেখেছে প্রশাসন।


এদিকে টানা বৃষ্টিতে তিস্তা, ঘিস, জলঢাকা নদীতে জলস্তরে বৃদ্ধি হয়েছে। তিস্তায় জারি হলুদ সতর্কতা। তিস্তা তীরবর্তী চাঁপাডাঙা সহ একাধিক অঞ্চল জলমগ্ন। ৬০০টি পরিবার জলবন্দী হয়ে পড়েছে।