ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার ঈদের দিন যেভাবে কাটবে কারাবন্দিদের

0
123

আসছে ঈদ। আসছে খুশি। খুশির এই দিনটি পরিবারের সাথে কাটাতে কার না ইচ্ছে জাগে। তবে সুযোগটি হচ্ছে না কারাগারের বন্দিদের। তাদের দিনটি কাটাতে হয় চার দেয়ালের মাঝে।

তবে এবার ঈদের আনন্দ থেকে পিছিয়ে থাকবেন না তারাও। এবার সেই ব্যবস্থাই করা হয়েছে। ঈদের দিন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে (কেরানীগঞ্জ) প্রায় ৯ হাজার বন্দির জন্য বিশেষ খাবার-দাবার ও আনন্দ-বিনোদনের আয়োজন করেছে কর্তৃপক্ষ।

কেন্দ্রীয় কারাগার সূত্রে জানা যায়, ঈদের দিন শুরুতেই প্রায় ৮-৯ হাজার বন্দির জন্য একযোগে কারাগারের ভেতরে ঈদ জামাতের ব্যবস্থা করা হবে। জামাতের পরপরই বন্দিদের মধ্যে পায়েস বিতরণ করা হবে। তারপর শুরু হবে ঈদুল ফিতর উদযাপন। দিনভর চলবে কারাগারের ভেতরে যন্ত্র-সরঞ্জাম দিয়ে গান-বাজনা। বন্দিরা মেতে থাকবেন বিনোদনে।

দুপুরে তাদের খাবারের মেনুতে থাকবে ভাত, মাছ, ডিম ও আলুর দম। রাতের খাবারে থাকবে পোলাও, গরুর মাংস, খাসির মাংস বা মুরগির মাংস, মিষ্টি ও স্প্রাইট। তারপরে রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে বন্দিদের পান-সুপারি দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) জেলার মাহবুবুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, কয়েকদিন পরেই ঈদুল ফিতর উদযাপন হতে যাচ্ছে। তাই সবাইকে অগ্রিম ঈদ মোবারক।

তিনি জানান, কেরানীগঞ্জ কারাগারের ভেতরে বিশাল দু’টি মাঠ আছে। সে দু’টি মাঠে প্রায় নয় হাজার বন্দিকে নিয়ে একযোগে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এই ঈদ জামাতের ইমামতি করবেন বাইরের কোনো ইমাম। কারাগারে বন্দিদের সঙ্গে ঈদ আনন্দে মেতে থাকবেন কর্মকর্তা ও কারারক্ষীরাও।

এক প্রশ্নের জবাবে জেলার মাহবুবুল জানান, ঈদের দিনে বন্দিদের জন্য কারাগার থেকেই ভালো খাবার দেওয়া হবে। তাই ঈদের দিন স্বজনরা বন্দিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে এলেও যেন খাবার না আনেন সেই অনুরোধ থাকবে। পরের দিন খাবার-দাবার আনলে সেটা দেওয়া হবে বন্দিদের।