নেইমারের বিরুদ্ধে এবার ধর্ষণের অভিযোগ!

0
69

প্যারিসে একটি হোটেলে নেইমারের বিপক্ষে ধর্ষণের অভিযোগ তুলেছেন এক নারী। সাও পাওলো পুলিশের কাছে তিনি এ অভিযোগ করেন। এ ব্যাপারে নেইমারের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে নেইমারের বাবার দাবি, ঘটনাটি সাজানো এবং তাঁর ছেলেকে ব্ল্যাকমেলের চেষ্টা করা হচ্ছে

নেতিবাচক ব্যাপারে শিরোনাম হওয়া নতুন নয় নেইমারের জন্য। ব্রাজিলিয়ান তারকার বিপক্ষে এবার উঠল ধর্ষণের অভিযোগ। ব্রাজিল পুলিশের মামলার নথি অনুযায়ী, গত মাসে প্যারিসে এক নারীকে ধর্ষণ করেছেন নেইমার। ঘটনার শিকার হওয়া নারী নিজেই এ অভিযোগ করেছেন। তাঁর নাম-পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে। নেইমারের বাবার দাবি, ঘটনাটি ‘সাজানো’।

সংবাদমাধ্যম ইএসপিএন ব্রাজিলের কাছে এই অভিযোগের পুলিশি নথিপত্র রয়েছে। সেই নথিপত্রে অভিযোগকারী নারীর ভাষ্য, গত ১৫ মে আনুমানিক রাত ৮টা ২০ মিনিটে প্যারিসের একটি হোটেলে তাঁকে ধর্ষণ করেন নেইমার। শুক্রবার ব্রাজিলের সাও পাওলো পুলিশের কাছে এ নিয়ে মামলা করেন সেই নারী।

পুলিশকে সেই নারী বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে খুদে বার্তা আদান-প্রদানের পর ফ্রান্সে নেইমারের সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ হয়। গাল্লো নামে পিএসজি তারকার এক প্রতিনিধি তাঁকে প্যারিসে আসার টিকিট কিনে দেন এবং হোটেলে থাকার ব্যবস্থাও করেন। অভিযোগকারী নারীর ভাষ্য, নেইমার ‘পুরো মাতাল’ হয়ে হোটেলে আসেন এবং তারা ‘একজন আরেকজনকে স্পর্শ করলেও একটি নির্দিস্ট মুহূর্তে নেইমার আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন এবং তাঁর ইচ্ছার বিরুদ্ধে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করেন’। প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই ঘটনার দুদিন পর প্যারিস ছাড়েন সেই নারী। মানসিকভাবে ভীষণ বিপর্যস্ত হয়ে পড়ায় প্যারিসের পুলিশের কাছে অভিযোগ করেননি তিনি। প্যারিস পুলিশ জানিয়েছে এ ঘটনা সমন্ধে তাঁরা কিছু জানেন না।

পুলিশের নথি অনুযায়ী, তদন্তের স্বার্থে সেই নারীর শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে। নেইমারের বাবা ও তাঁর এজেন্ট নেইমার সিনিয়র ধর্ষণের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর ভাষ্য, অভিযোগকারী নারীর সম্মতিতেই তাঁর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক ছিল নেইমারের। সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর সেই নারীর আইনজীবী এখন নেইমারকে ব্ল্যাকমেল করার চেষ্টা করছেন। ব্রাজিলের একটি টিভি চ্যানেলকে নেইমার সিনিয়র বলেন, ‘সময়টা কঠিন। দ্রুত সত্য জানাতে না পারলে এটা আরও বড় হবে। সেই নারীর সঙ্গে নেইমারের হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা প্রকাশের প্রয়োজন হলে আমরা তা করব।’

নেইমারের বাবা আরও দাবি করেছেন, এটা সাজানো ঘটনা এবং তাঁর ছেলেকে যে ব্ল্যাকমেল করা হচ্ছে, সেই প্রমাণ তাঁর হাতে। সেটি ছবি ও প্রত্যক্ষদর্শী। তবে টিভি চ্যানেলে নেইমারের বাবা এ ধরনের কিছুই প্রকাশ করেননি। প্রয়োজন হলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং সেই প্রস্তুতিও নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নেইমারের বাবা। ব্রাজিলের জাতীয় দলের সঙ্গে এখন কোপা আমেরিকার প্রস্তুতিতে ব্যস্ত নেইমার। ১৪ জুন ব্রাজিলে শুরু হবে দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশে শ্রেষ্ঠত্বের এ লড়াই। কাল ছুটি ছিল ব্রাজিলের খেলোয়াড়দের। সতীর্থদের নিয়ে দিনের শুরুতেই ব্যক্তিগত হেলিকপ্টারে করে অনুশীলন মাঠ ছাড়েন নেইমার। ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি।

নেইমার কিছু না বললেও ছেলের পাশে শক্তভাবেই দাঁড়িয়েছেন তাঁর বাবা নেইমার সিনিয়র, ‘আমি জানি, আমার ছেলের বিপক্ষে অনেক অভিযোগই উঠতে পারে। কিন্তু সে কেমন ছেলে, কেমন পুরুষ এবং কেমন বাবা-মায়ের সন্তান তা আমি জানি। আমরা যত দ্রুত সম্ভব সুবিচার পেতে লড়াই করব।’

OBHAI

ব্রাজিল তারকাকে নিয়ে সাম্প্রতিক বিতর্কের মধ্যে ধর্ষণের অভিযোগ সবশেষ সংযোজন। এ অভিযোগ ওঠার প্রায় সপ্তাহখানেক আগে ব্রাজিলের নেতৃত্ব হারান নেইমার। পিএসজিতে শৃঙ্খলাহীন জীবন কাটানোর শাস্তি হিসেবে নেইমার দেশের নেতৃত্বভার হারিয়েছেন বলে জানিয়েছিল সংবাদমাধ্যম। এ ছাড়া পিএসজি ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনালে হেরে যাওয়ার পর এক সমর্থকের সঙ্গে কথা-কাটাকাটির মধ্যে ঘুষি বাগিয়েও তেড়ে গিয়েছিলেন নেইমার। আর কথা না শোনার অনুযোগ করে পিএসজি সতীর্থদের সমালোচনাও করেছেন এ ফরোয়ার্ড। চোট ও বিতর্ক মিলিয়ে সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছে না নেইমারের।