ঈদে মুক্তি পাচ্ছে গোয়েন্দাগিরি

0
118

একদল টিনএজ ছেলেমেয়ে ছুটিতে বেড়াতে যাচ্ছে। তাদের একটি বিশেষ পরিচয় হচ্ছে তারা স্বপ্ন দেখে যে ভবিষ্যতে বড় গোয়েন্দা হবে। তাদের কারও আইডল শার্লক হোমস, কেউ আবার ফেলুদার ভক্ত, কেউ তিন গোয়েন্দা, কেউ জেমস বন্ডকে গুরু মানে।

তাদের এবারের অভিযানটা শুরু হয় যখন মিডিয়াতে একটি পুরনো ভুতুড়ে বাড়ি নিয়ে হইচই পরে যায়। বনের মধ্যে অবস্থিত বাড়িটি নাকি অভিশপ্ত। অভিশপ্ত এই বাড়ির রহস্য উন্মোচনে ঝাঁপিয়ে পড়ে এই শখের গোয়েন্দারা।

তাদের এই অভিযানে রহস্যের স্বাদ যেমন পাওয়া যাবে তেমনি পাওয়া যাবে টিনএজ খুনসুটি, টিনএজ রোমান্টিসিজম আরও কত কি! এমনই এক গল্পে ‘গোয়েন্দাগিরি’ নামের সিনেমা তৈরি করেছেন নাসিম সাহনিক।

তিনি জানালেন, আসছে ঈদুল ফিতরে ছবিটি মুক্তি দেয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি। এরইমধ্যে ছবিটি সেন্সরে ছাড়পত্র পেয়েছে।

এ ছবিতে অন্যতম চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিম চৌধুরী। ‘ম্যাংগোলি চ্যানেল আই সেরা নাচিয়ে’র উপস্থাপিকা হিসেবে আলোচনায় আসেন মিম। এরপর শাকিব খানের সঙ্গে ‘লাভ এক্সপ্রেস’ ও প্রসূন রহমানের সরকারি অনুদানের ছবি ‘সুতপার ঠিকানা’ নামে দু’টি ছবিতে অভিনয় করে দারুণ প্রশংসিত হন মিম।

মিম এ ছবিতে তার অভিনয় ও অভিজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, ‘ছবিটির শুটিং এবং ডাবিংয়ের সময় বেশ মজা করেছি আমরা। সুন্দর একটা টিম ওয়ার্ক ছিলো। ‘গোয়েন্দাগিরি’ ছবিটির কাহিনী একেবারেই আলাদা। হরর থ্রিলারধর্মী। চিত্রনাট্যও অসাধারণ। এজন্যই কাজটি করেছি। ছবিতে আমার চরিত্রের নাম গোয়েন্দা পিংকি।

পিংকি অনেকটা জনপ্রিয় কমিক ক্যারাকটের ‘পিংকি’র মতো। বেশ চঞ্চল একটা মেয়ে। সারাক্ষণ ফেসবুকিং আর গসিপিং নিয়ে থাকে। সিডনি শেলডন আর শার্লক হোমসের ফ্যান সে।’

মিম ছাড়াও এর বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন কল্যাণ কোরাইয়া, সীমান্ত আহমেদ, শম্পা হাসনাইন, কচি খন্দকার, তারেক মাহমুদ, টুটুল চৌধুরি, শিখা খান, তানিয়া বৃষ্টি, প্রিন্স প্রমুখ।

পরিচালক বলেন, ‘আম্মাজান ফিল্মের ব্যানারে নির্মিত ‘গোয়েন্দাগিরি’ সিনেমাটি দর্শকদের রুচিশীল বিনোদন উপহার দেবে। চলচ্চিত্রটি শিশুকিশোরদের জন্য একটি ভালো আর্কাইভ হবে বলেও মনে করি আমি।’

ছবিটির মুক্তি উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার, ১৭ মে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের শহীদ জহির রায়হান মিলনায়তনে একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সেখানে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শেখ অ্যানি রহমান এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব জনাব ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি জনাব মুশফিকুর রহমান গুলজার, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির মহাসচিব জনাব বদিউল আলম খোকন, ইভালির সিইও জনাব মো. রাসেল, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সদস্য ও বাংলাদেশ প্রযোজক সমিতির সাবেক সহ সভাপতি জনাব খোরশেদ আলম খসরু, প্রযোজক জনাব মোরশেদ খান হিমেল।

অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন গোয়েন্দাগিরি চলচ্চিত্রের প্রযোজক ও আম্মাজান ফিল্মসের কর্ণধার জনাব মামুনুর ইসলাম । অনুষ্ঠানটির সমন্বয়ে ছিলেন গোয়েন্দাগিরি চলচ্চিত্রের পরিচালক নাসিম সাহনিক।