সাভারে কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ভাবিকে মারধর, আহত ৩

0
201

স্টাফ রিপোর্টার : সাভারে হাবিবুর রহমান নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে তার বড় ভাইয়ের বউ পপি আক্তারকে কু-প্রস্তাব দেওয়ায় রাজি না হওয়ায় মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগি পপি আক্তার সাভার মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। মঙ্গলবার রাতে সাভার উপজেলার বনগাও ইউনিয়নে সাধাপুর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। মারধরের ঘটনায় পপিসহ ৩ জন আহত হয়েছেন। তারা সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সাভার উপজেলার বনগাও ইউনিয়নের সাধাপুর মহল্লার বাসিন্দা সৌদি প্রবাসী মোখলেস খানের স্ত্রী পপি আক্তার ছেলে-মেয়েকে নিয়ে বসবাস করে আসছেন। দীর্ঘদিন যাবত মোখলেস খানের ছোট ভাই হাবিবুর রহমান খান তার বড় ভাইয়ের বউ পপি আক্তারকে বিভিন্ন সময় একাধিকবার কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। পপি আক্তার বিষয়গুলো এলাকার ইউপি সদস্যসহ স্থানীয় ব্যক্তিদের কাছে অভিযোগ করলে তারা কয়েক দফায় বিচার সালিশের মাধ্যমে হাবিবুর রহমানকে এধরনের কাজ থেকে বিরত থাকাসহ বিষয়টি মিমাংশা করে দেন।

এক পর্যায়ে হাবিবুর রহমান মঙ্গলবার রাতে পপি আক্তারের বাসায় গিয়ে অকথ্য ভাষায় বকাঝকাসহ পপিকে শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করে। এসময় তার ডাক-চিৎকারের আশপাশের লোকজন বিষয়টি আঁচ করতে পেরে ঘটনাস্থলে এসে পপি আক্তারকে উদ্ধার করে। পরে বিষয়টি পপি আক্তার তার ভাইদের জানালে তারা এসে পপিকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যাবে বলে জানায়। এসময় হাবিবুর রহমান ক্ষিপ্ত হয়ে তার কয়েকজন বন্ধু মিলে পপি আক্তার ও তার  ছোট ভাই নজরুল ইসলাম ও রাকিবুলের উপর হামলা চালিয়ে জখম করে। তাদেরকে উদ্ধার করে সাভার সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন এলাকাবাসী।

সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ এফ এম সায়েদ জানান, এক মহিলাকে কু-প্রস্তাব দেওয়া ও মারধর করার একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে বিষয়টির ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।