প্যারোলে খালেদার মুক্তি রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত : খন্দকার মাহবুব

0
96

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি পাওয়া রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন তার অন্যতম সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

রোববার (৭ এপ্রিল) কুমিল্লার এক মামলায় খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রেখে আপিল বিভাগের দেয়া আদেশের পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এই মন্তব্য করেন।

এর আগে শনিবার (৬ এপ্রিল) জামালপুরে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তির আবেদন করলে বিষয়টি বিবেচনা করবে সরকার।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘আমি বারবার বলেছি- প্যারোলের বিষয়টি রাজনৈতিক বিষয়। এখানে ম্যাডাম খালেদা জিয়া প্যারোলে যাবেন কি-না এবং সরকার প্যারোল দিবেন কি-না এটা রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত। আমরা আইনজীবী হিসেবে বলতে পারি চিকিৎসার জন্য প্যারোলে যায়।’

প্যারোলের বিভিন্ন উদাহরণ তুলে ধরে তিনি বলেন, দেশে, ভারতে, পাকিস্তানে প্যারোলের যাবার নজির আছে। রাজনৈতিক অঙ্গনে প্যারোলে যাওয়া প্রায় দেখা যায়। আমরা চাই তাকে আইনগতভাবে মুক্তি দেয়া হোক।

এর আগে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বাসে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। হাইকোর্টের জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন খারিজ করে দিয়ে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

জামিন বহালের বিষয়ে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, সরকারের আবেদন ডিসমিসড করে জামিন বহাল রেখেছেন। সরকারের বাধার কারণে আইনি প্রক্রিয়ায় জামিন কঠিন হবে। এখনও তার দুটি মামলা আছে। এগুলো পেন্ডিং আছে। ইতোমধ্যে কোনো মামলা না দিলে ওই দুটি (জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট) মামলায় জামিন পেলে তিনি জেল থেকে বের হবেন।

এসময় এক প্রশ্নের জবাবে খালেদা জিয়ার অপর আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, আমরা প্যারোলের আবেদন করি নাই।