নিত্যব্যবহার্য জিনিস পরিস্কার করা জরুরি ।

 

 

মেঝে কিংবা আসবাব-ই নয়, রান্নাঘরের বেসিন থেকে শুরু করে টিভির রিমোর্ট সবই পরিষ্কার করতে হবে।

ঘরবাড়ি নিয়মিত পরিষ্কার করা হলেও কিছু জিনিসে প্রতি বরাবরই মনোযোগ দেওয়া হয় না।

 

স্বাস্থ্য-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে ঘরের কয়েকটি জিনিস সম্পর্কে জানানো হল যা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার মাধ্যমে সুস্থ থাকা সম্ভব।

 

রিমোট কন্ট্রোল: এই যন্ত্রটা অনেক বেশি ব্যবহার করা হয়। এয়ার কন্ডিশনার, টেলিভিশন বা অন্য যে কোনো বৈদ্যুতিক যন্ত্রের রিমোট আমাদের জীবনকে অনেকটাই সহজ করে দেয়। এগুলো ঠিক মতো পরিষ্কার রাখা না হলে তা স্বাস্থ্য ঝুঁকির কারণ হতে পারে। অল্প ভেজা কাপড় ও মিহি তন্তুর সাহায্যে রিমোট পরিষ্কার করা উচিত।

 

সেলফোন: কয়েকটি গবেষণায় প্রমাণ পাওয়া গেছে, মোবাইল ফোন সবচেয়ে বেশি ময়লা থাকে। তাই প্রতিদিন এটা পরিষ্কার করা উচিত। অনেকে টয়লেটে ফোন নিয়ে যায়। এসময় হাত পরিষ্কারের আগে ফোন ব্যবহার করা হলে জীবাণু এতে প্রবেশ করে।

 

রান্না ঘরের সিংক: তেল চিটচিটে ও ময়লা জিনিস এখানে ধোয়া হয়। সিংক ও এর পানি বের হওয়ার পাইপ পরিষ্কার রাখতে একদিন পরপর ভালো মতো ধোয়া উচিত।

 

মেইকআপ ব্রাশ: মেইকআপ ব্রাশে জমে থাকা মেইকআপ ত্বকে সংক্রমণের সৃষ্টি করে। তাই সপ্তাহে অন্তত একবার পরিষ্কার করা উচিত।

 

দরজার হাতল: দরজার হাতল তো ধরতেই হয়। তবে একে ব্যাকটেরিয়ার কারখানা বলা যায়। এটা খুব সহজেই পরিষ্কার করা যায়। সাদা ভিনিগারে কাপড় ডুবিয়ে তা দিই দরজার হাতল মুছে পরিষ্কার করে নিন।

 

রেফ্রিজারেটরের কয়েল: রেফ্রিজারেটরের এই অংশ দেখা যায় না  মনোযোগ দেওয়া হয় না। তবে স্বাস্থেয়ের কথা বিবেচনা করে এটা পরিষ্কার রাখা উচিত। এতে রেফ্রিজারেটরের কার্যকারিতাও ঠিক থাকে।