সাভারের উন্নয়নে খুব শীঘ্রই বড় ধরনের বেশ কয়েকটি প্রকল্প আসছে : ডা. এনাম

 

স্টাফ রিপোর্টার : সাভারের উন্নয়নে খুব শীঘ্রই বড় ধরনের বেশ কয়েকটি প্রকল্প আসছে। এজন্য শনিবার (আজ) এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মিলনায়তনে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে জরুরী সভার আয়োজন করা হয়েছে। সাভার পৌরসভা এলাকায় হচ্ছে, আধুনিক শিশু পার্ক ও অত্যাধুনিক ক্রিড়া কমপ্লেক্স। যেখানে খেলোয়ার তৈরী করা হবে। বঙ্গবন্ধুর আদরের পুত্র শেখ রাসেলের নামে হবে এ ক্রিড়া কমপ্লেক্স। সাভার পৌর এলাকার ময়লাসহ নানা বর্জ্য পরিশোধনের জন্য সাভারে বিদ্যুৎ প্লান্ট হবে। ময়লা ডাম্পিংয়ে কোন ধরনের সমস্যা হবে না। শুক্রবার প্রাইভেট হসপিটাল অউনার এসোসিয়েশন অব সাভার (ফোয়াস)-এর নতুন অফিস উদ্বোধন ও সংগঠনের সভাপতি স্থানীয় সংসদ সদস্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমানের সংবর্ধনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংবর্ধিত মন্ত্রী বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলি বলেছেন। ফোয়াসের সিনিয়র সহসভাপতি ওয়াকিলুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাভার পৌরসভার মেয়র হাজী আবদুল গণি।

ফোয়াস-এর সাধারণ সম্পাদক ও সাভার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোবিন্দ আর্চায্যের উপস্থাপনায় সভায় অনেকের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রীর সহধর্মীনি ডাঃ ফরিদা হক, সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ আমজাদুল হক, সাভার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএফএম সায়েদ, সাভার প্রেসক্লাব সভাপতি ও দৈনিক ফুলকির সম্পাদক নাজমুস সাকিব, সাভার নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন খান নঈম, এনটিভির সিনিয়র স্টাফ করসপন্ডেট জাহিদুর রহমান, ফোয়াস কর্মকর্তা ডাঃ আবদুর রাজ্জাক ও মন্ত্রীর এপিএস ডাঃ শামীম হোসেন, সাংবাদিক আবদুল হালিম, ফোয়াস নেতা ও সুপার মেডিকেল হসপিটালের মালিক সেলিম রেজা, শাহ মোঃ রাসেল উদ্দিন প্রিন্স, ডাঃ আমিনুল ইসলাম, ডাঃ আব্বাস উদ্দিন, ডাঃ নুরুল হাকিম, বিশিষ্ট সমাজসেবক দেলোয়ার হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট আবদুল আউয়াল, সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

সংবর্ধনার জবাবে মন্ত্রী আরও বলেন, ফোয়াসের নির্বাচন ছিল আমার জীবনের প্রথম নির্বাচন। সাবেক দুই সংসদ সদস্য আমার বিরোধিতা করার পরও আমি নির্বাচনে জয়লাভ করি। ওই নির্বাচনেরদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তীক্ষè নজর রেখেছিলেন। তখনকার ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার হাবিবুর রহমান সাহেব কতক্ষণ পর পর আমার নির্বাচনের খোঁজ খবর নিচ্ছিলেন। তখনই জানতে পেরেছিলাম আমাকে সাভার থেকে সংসদ সসদ্য মনোনয়ন দিতে চাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

মন্ত্রী ডাক্তারদের আরও বিনয়ী হওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেন, সেবার মনোভাব নিয়ে রোগী দেখতে হবে। রোগীদের অভ্যর্থনা জানাতে হবে। মর্যাদার সাথে চিকিৎসা সেবা দিতে হবে। পরিবর্তন আনতে হবে। তিনি বলেন, আমরা ডাক্তারগণ এখনও তা করতে পারিনি।  তিনি আরও বলেন, সমর্থবান রোগীরা ভারত যাচ্ছে। ভাল সমর্থবান ব্যক্তিরা যাচ্ছেন থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন স্থানে। প্রতি বছর শুধুমাত্র চিকিৎসা নিতে ভারত যাচ্ছে ১০ হাজারের বেশী রোগী।

বিশেষ অতিথি পৌর মেয়র হাজী আবদুল গণি বলেন, সাভার পৌরসভায় কমবেশি ১০ লক্ষ লোকের বসবাস। বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সমস্যা প্রকট। পৌরসভার নিকটে কমলাপুরে ৫ একর জমি ক্রয়ের জন্য কথা বার্তা চলছে। কিন্তু টাকার অভাবে তা ক্রয় করতে পারছেন না। তিনি মন্ত্রীর সহযোগিতা নিয়ে আগামী দিনে এগিয়ে যেতে তার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।