আশুলিয়ায় বিদ্যুৎতের আগুনে দোকানসহ শ্রমিক কলোনীর ২১টি কক্ষ ভস্মীভূত

আশুলিয়া ব্যুরো : আশুলিয়ায় বিদ্যুতের আগুনে দু’টি লেপ-তোষকের দোকানসহ একই মালিকানার শ্রমিক কলোনীর ২১টি কক্ষ ভস্মীভূত হয়েছে। খবর পেয়ে ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিট ঘন্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় আশুলিয়ার তাজপুর এলাকার রংপুর মার্কেট এলাকার তমিজ উদ্দিননের নির্মাণাধীন দু’টি লেপ-তোষকের দোকান ও তার ভাড়া প্রদানকৃত শ্রমিক কলোনীতে এ ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে লেপ তোষকের দোকান মালিক নয়ন ইসলাম জানান, নয়ন বেডিং স্টোর নামে দু’টি লেপ-তোষকের দোকানের মালিক তিনি। বেলা পৌনে ১১টা থেকে দোকানের শাটার কাটার জন্য বৈদ্যুতিক লাইনের সংযোগ দিয়ে কাজ করতে ছিলেন তিনি ও মিস্ত্রি। কিছুক্ষণ পর বিদ্যুৎ লাইনের পয়েন্ট থেকে আগুন লেগে যায়। এসময় দোকানের অভ্যন্তরে তুলা ভর্তি ছিল। আগুন মজুদকৃত তুলায় ধরলে মূহুর্তের মধ্যে তার পার্শ্ববর্তি দোকান ও দোকান সংলগ্ন শ্রমিক কলোনীতে ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার মূহুর্তে শ্রমিক কলোনীতে বসবাসকারিরা পার্শ্ববর্তী পোশাক কারখানায় কর্মরত ছিলেন। পরে কলোনীর ও দোকানের নির্মাণ মালিক তমিজ উদ্দিন ডিইপিজেড দমকল বাহিনীকে জানালে। তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে ও উপস্থিত পার্শ্ববর্তিরা আগুন নিভাতে ও নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করেন। প্রায় ঘন্টাব্যাপী চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে তারা সক্ষম হন। তিনি আরো বলেন, প্রথমে আগুন নিভাতে সে একাই চেষ্টা চালাতে গেলে তার দু’হাতের কনুইসহ কিছু অংশ দগ্ধ হয়।

শ্রমিক কলোণী ও মার্কেটের মালিক তমিজ উদ্দিন বলেন, ঘটনার মূহুর্তে তিনি কলোনীতে ছিলেন না। তবে লেপ তোষকের দোকান থেকে আগুন লাগে। মূহুর্তেই আগুন শ্রমিক কলোনীতে ছড়িয়ে পড়ে। এতে শ্রমিকদের ব্যবহার্য জিনিসপত্র, সোনা গয়না, ফ্রীজ, আসবাবপত্র, টিভিসহ কাপড়-চোপড় আগুনে ভস্মীভূত হয়। এতে ভৌত অবকাঠামোসহ প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলেও তিনি জানান। এ ঘটনায় লেপ তোষকের দোকানের মালিক নয়ন ইসলামের হাতের কিছু অংশ পুড়ে গেছে।

পার্শ্ববর্তীরা জানান, প্রায় ৫/৬ মাস আগে একই বাড়ির কিয়ামুদ্দিনের শ্রমিক কলোনীতে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছিল। এবার তারই ভাই মৃত মিয়াজ উদ্দিনের ছেলে তমিজ উদ্দিনের মার্কেট ও শ্রমিক কলোনীতে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসীর ও ফায়ার সাভিসের সদস্যদের ঘন্টাব্যাপী প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন।

ফায়ার সার্ভিসের ডিইপিজেড স্টেশন অফিসার আব্দুল হামিদ বলেন, খবর পেয়ে তারা সাড়ে ১১টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করেন। বেলা সোয়া ১২টায় তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাবেন। লেপ-তোষকের দোকান ঘরে শাটার কাটার কাজে  বিদ্যূৎ ব্যবহার করতে গেলে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। ঘটনায় নয়ন নামে একজন ব্যবসায়ী সামান্য দগ্ধ হয়েছেন।