এমপিওভুক্ত হচ্ছেন শূন্যপদে নিয়োগ পাওয়া ১১২৪ শিক্ষক

 দেশের বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে শূন্যপদে নিয়োগ পাওয়া এক হাজার ১২৪ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের এমপিও কমিটি। এসব শিক্ষক নিয়োগ পেয়ে এমপিওভুক্তির (বেতন-ভাতার সরকারি অংশ) জন্য অনলাইনে আবেদন করেছিলেন।

শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের রুটিন দায়িত্বে থাকা কলেজ ও প্রশাসন শাখার পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ শামছুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নভেম্বর মাসের এমপিও কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। গতকাল সোমবার অধিদপ্তরে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তিনজন উপসচিব ও সিনিয়র সহকারী সচিব অংশ নেন।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, স্কুল ও কলেজের এক হাজার ১২৪ জন শিক্ষক-কর্মচারীর মধ্যে বরিশাল অঞ্চলে ৬২ জন, চট্টগ্রাম ৩৭, কুমিল্লা ২৭, ঢাকা ২২৭, খুলনা ৭৭, ময়মনসিংহ ১২৬, রাজশাহী ১২৮, রংপুর ১২২ জন এবং সিলেট অঞ্চলে ৩২ জনকে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়া অফলাইনে আবেদন করা ২৮৬ শিক্ষককে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত হয়।

সভায় অধিদপ্তরের দুজন পরিচালক, মাদ্রাসা অধিদপ্তরের একজন পরিচালক, শিক্ষা অধিদপ্তরের নয় আঞ্চলিক উপ-পরিচালক ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তিনজন প্রতিনিধিসহ প্রায় ৩০ জন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

নভেম্বরেই শিক্ষকদের ইনক্রিমেন্ট দেওয়ার নির্দেশ
সভায় কমিটি এমপিওভুক্ত স্কুল ও কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীদের নভেম্বর মাসের বেতনের সাথেই ৫ শতাংশ বার্ষিক প্রবৃদ্ধি যুক্ত করে দেওয়ার সিদ্ধান্তও নিয়েছে।

বৈঠকে জানানো হয়, এজন্য গত বৃহস্পতিবার (১৫ নভেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে শিক্ষা অধিদপ্তরকে একটি চিঠি পাঠায়। চিঠিতে চলতি বছরের ১ জুলাই থেকে বার্ষিক পাঁচ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ও আগামী বৈশাখী থেকে বৈশাখী ভাতা দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ২৮ অথবা ২৯ নভেম্বর বেসরকারি স্কুল ও কলেজ শিক্ষকদের নভেম্বর-২০১৮ মাসের অনুদানের চেক ব্যাংকে পাঠানো হতে পারে।