যে পাঁচটি দেশকে ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে আমরা দেখতে পাব না!

ক্রিকেট মানেই অনিশ্চিতির খেলা। কেউ বলতে পারবেনা দিনের দিন কার মাথায় উঠবে সোনার মুকুট আর কাকে হারের ব্যর্থতা নিয়ে মাথায় তুলতে হবে কাঁটার মুকুট। অতীতেও আমরা দেখেছি অনেক অনামী দেশ হারিয়ে দিয়েছে বিশ্বমানের ক্রিকেট দলকে। তবে ফেভারিট ও আন্ডারডগদের মধ্যে মোকাবিলার সর্বোত্তম প্ল্যাটফর্মই হল বিশ্বকাপ। আর এবারে সেখানেই আমরা দেখতে পাবনা ১০ টি দেশকে যারা আন্ডারডগ হয়েও তাদের সাম্প্রতিক প্রদর্শনীতে অবশ্যই প্রতিদ্বন্ধীতা ও চমকের দাবী রাখে।

ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হবে ২০১৯ বিশ্বকাপ। তার সূচিও চূড়ান্ত। যথাসাধ্য প্রস্তুতি নিয়ে নিজেদের গোছাতে শুরু করেছে দলগুলো। লক্ষ্য, পরিকল্পনা, উদ্দেশ্যও ঠিক করে ফেলছে সবাই। কে ফেবারিট তা বলবে খেলার মাঠ তবে বিশ্লেষকদের মতে এবারের বিশ্বকাপ অন্য যে কোনোবারের চেয়ে বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। বিশ্বকাপ শুরু আগামী বছরের ৩০ মে। এবারের বিশ্বকাপটি হবে ১৯৯২ সালের ফরমেটে। যেখানে সেরা দশটি দলই পরস্পরের মোকাবেলা করবে রাউন্ড রবিন লিগে। সেখান থেকে সেরা চার দল খেলবে সেমিফাইনাল বা নকআউট।

তবে এবারের বিশ্বকাপে যে ৫ টি দেশের ক্রিকেট দল থাকবে না তারা হল –

১> স্কটল্যান্ড-

১৯৯৯, ২০০৭ ও ২০১৫ তিনবারই স্কটল্যান্ড উঠে এসেছিল বিশ্বকাপে এবং গ্রুপ লিগের খেলায় অন্য দলগুলোকে যথেষ্টই বেগ দিয়েছিল । এবারেও বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার রাউন্ডে স্কটল্যান্ডের প্রদর্শনী যথেষ্টই প্রশংসাযোগ্য। আফগানিস্তান, হংকং ও নেপালকে হারালেও আয়ারল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তাদের ম্যাচে খারাপ আম্পায়িরংই এবার স্কটল্যান্ডের কপাল পোড়ানোর জন্য ছিল যথেষ্ট।

২> নেদারল্যান্ড-

২০১৯ বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডকেও আমরা পাচ্ছিনা। যদিও ২০১১ তে বিশ্বকাপের গ্রুপ লিগে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তাদের খেলা ভোলবার নয় যেখানে নেদারল্যান্ড ৬ উইকেটে ২৯২ করেছিল, দুর্ভাগ্যবশত দু বল বাকি থাকতে রান তাড়া করে সে ম্যাচে জিতে যায় ইংল্যান্ড। তবে এবারে স্কটল্যান্ডের মতই খারাপ আম্পায়ারিংয়ের শিকার নেদারল্যান্ড তাদের কোয়ালিফায়িং ম্যাচগুলিতে। সংযুক্ত আরব আমীরশাহী, আয়ারল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তিনটি ম্যাচেই হেরে বিশ্ব কাপে এবার স্থান পায়নি নেদারল্যান্ড।

৩> কেনিয়া-

২০০৩ বিশ্বকাপ বোধহয় গত ১০ বছরের সব বিশ্বকাপের চেয়ে বেশি অঘটনের ছিল যখন আন্ডারডগ কেনিয়া সবাইকে চমকে দিয়ে প্রথমে সুপার সিক্সে পৌঁছ যায় আর তারপর সোজা সেমিফাইনালেও। যদিও ভারতের কাছে সেমিফাইনালে হেরে যায় কেনিয়া কিন্তু ২০০৩ বিশ্বকাপে তাদের পারফর্মেন্স ভোলবার নয় এবং আফ্রিকান দেশগুলির মধ্যে কেনিয়া হল একমাত্র নন টেস্ট প্লেয়িং কান্ট্রি যে কিনা বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠেছিল।

তবে এবার কেনিয়া বিশ্বকাপে স্থান পায়নি কারন আইসিসির দ্বিতীয় ডিভিশন ক্রিকেটে তাদের ক্রমাগত ব্যর্থতা ও খারাপ পারর্ফমেন্সের জন্য আইসিসি কেনিয়াকে তৃতীয় ডিভিশনে স্থান দেয়।

৪> জিম্বাবোয়ে-

জিম্বাবোয়ের ক্রিকেট ইতিহাস কে না জানে । এবং সেটা ১৯৮৩ বিশ্বকাপ থেকেই যা ছিল তাদের প্রথম বিশ্বকাপ এবং সেই বিশ্বকাপেই ফেভারিট অষ্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে দেয় জিম্বাবোয়ে। এবং আন্ডারডগ দলগুলির উঠে আসার গল্পই বোধহয় জিম্বাবোয়েকে দিয়ে শুরু হয়েছিল। ১৯৯২ তে তারা ইংল্যান্ডকে হারিয়ে আবার চমক দেয় এবং ১৯৯৯ এ জিম্বাবোয়েকে যখন টেস্ট স্ট্যাটাস দেওয়া হল তখন সে আর আন্ডারডগ নেই বরং ঝুলিতে ভরে নিয়েছে ভারত বা সাউথ আফ্রিকাকে হারাবার তকমা। তবে দেশীয় রাজনৈতিক ঝঞ্জা যথেষ্ট প্রভাব ফেলেছে জিম্বাবোয়ের ক্রিকেটে।

২০১৯ এর বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার রাউন্ডে জিম্বাবোয়ের সাথে সংযুক্ত আরব আমীরশাহীর খেলাই তাদের ভাগ্য নির্ণয় করে দেয় যেখানে প্রবল প্রতিদ্বন্ধীতায় সংযুক্ত আরব আমীরশাহীর কাছে হেরে যায় জিম্বাবোয়ে এবং ১৯৮১ তে এসোসিয়েট মেম্বার হওয়ার থেকে শুরু করে এই প্রথম বার ক্রিকেট বিশ্বকাপে নেই জিম্বাবোয়ে।

৫>- আয়ারল্যান্ড –

ক্রিকেট বিশ্বে আয়ারল্যান্ড হল এমন একটা সম্ভাবনার নাম যাকে নিয়ে ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও সহজে কোনো ভবিষ্যবানী করতে পারেননা। ২০০৭ বিশ্বকাপে পাকিস্তান , বাংলাদেশ, ২০১১ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঐতিহাসিক রান তাড়া করা কিংবা ২০১৫ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে দেওয়া সবই ও ব্রায়েন ভাই কিংবা উইলিয়াম পোর্টারফিল্ডের দৌলতে আয়ারল্যান্ড ইতিমধ্যেই হাসিল করেছে।

তবে এবারের বিশ্বকাপ কোয়ালিফাইং ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে হেরে গিয়ে ছিটকে যায় আয়ারল্যান্ড এবং যেহেতু এবার বিশ্বকাপ রাউন্ড রবীন লিগে ১০ টি দেশকে নিয়ে হবে তাই আয়ারল্যান্ডের শিকে ছিঁড়ল না ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে।