সিংগাইরে ৩ পিতাপুত্রদ্বয়কে থানায় আটক, অত:পর ৩০ হাজার টাকায় মুক্তি

সিংগাইর (মানিকঞ্জ) প্রতিনিধি : সিংগাইরে পারিবারিক কলহের জের ধরে একই পরিবারের বাপ ও দু‘ছেলেকে থানা হাজতে আটক রেখে ৩০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ ওঠেছে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে। পুলিশের এ ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি এলাকায় চলছে কানাঘুষা।

জানা গেছে, উপজেলার জয়মন্টপ ইউনিয়নের চর নয়াডাঙ্গী পূর্বপাড়া গ্রামের একটি পারিবারিক কলহের জের ধরে থানার এসআই সোহল রানা গত শনিবার বিকেল ৪টারদিকে একই পরিবারের ৩ জনকে আটক করেন। আটকৃতরা হচ্ছে-আব্দুল মুন্নাফ বেপারী (৬০), তার দু‘ছেলে লিটন বেপারী (২৬) ও বায়হান বেপারী (১৭)। প্রায় ৬ ঘন্টা থানা হাজতে আটক রাখার পর স্থানীয় ক্ষমতাসীন দলের জনপ্রতিনিধি‘র ভাইয়ের মধ্যস্থতায় দেন দরবার শেষে রাত ১০ টারদিকে ছাড়া পান তারা। থানা থেকে মুক্তি পাওয়া লিটন বেপারি মুঠোফোনে রবিবার বিকেলে জানান,  ভাবির সাথে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে  থানার এসআই সোহল রানা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে তার বৃদ্ধ পিতাসহ ২ ভাইকে আটক করে থানা হাজতে রাখে। পরে তার পরিবারের লোকজন ৩০ হাজার টাকা দিলে মুচলেকায় ওই দিন রাতেই থানা থেকে ছাড়া পান তারা। এসআই সোহেল রানা বলেন, তাদেরকে থানায় আনা হয়েছিল ঠিকই। ওসি স্যারের কথায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তবে কোন টাকা পয়সা নেয়ার কথা আমার জানা নেই।

এ ব্যাপারে সিংগাইর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মতিয়ার রহমান মিঞা বলেন, জনৈক মহিলা অভিযোগের প্রেক্ষিতে আটক করা হয়েছিল। মিমাংসার শর্তে ছেড়ে দেয়া হয়। কোন টাকা পয়সা লেন দেন করা হয়নি।