মাদ্রাসায় শেখ হাসিনার বার্তা পৌঁছালো ছাত্রলীগ

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা : কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতি দিচ্ছে শেখ হাসিনার সরকার। ইতোমধ্যে সংসদে অনুমোদনও হয়েছে। মাদ্রাসার শিক্ষাকে যে বর্তমান সরকার কোনো ধরনের বৈষম্য করছে না, সেই বার্তা পৌঁছে দিলো কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

মঙ্গলবার বিকেলে ফটিকছড়ির কাঞ্চননগর রুস্তমিয়া মুনিরুল ইসলাম দাখিল মাদ্রাসায় এ বার্তা পৌঁছে দেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাবেক সহ-সভাপতি আদিত্য নন্দী।

 

তাদের সফরসঙ্গী হিসেবে ছিলেন নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু, উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বখতিয়ার সাইদ ইরান, নগর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর, সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতি মাহমুদুল করিম প্রমুখ।

 

তারা প্রায় এক ঘণ্টা অবস্থান করেন ওই মাদ্রাসায়। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সময় কাটান রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও আদিত্য নন্দী। ছবিও তোলেন ছাত্রদের সঙ্গে। এসময় মাদ্রাসা শিক্ষার প্রসারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদানের কথা তুলে ধরেন তারা।

 

রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, মানসম্মত ধর্মীয় শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষে সারাদেশে এক হাজার ৬৮১টি মাদ্রাসার অবকাঠামো উন্নয়নের উদ্যোগ নিয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ লক্ষে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৬ হাজার কোটি টাকা। আলেম-ওলামাদের মান-মর্যাদা বৃদ্ধি করছে বর্তমান সরকার। মাদ্রাসা শিক্ষাকে সর্বোচ্চ সনদে মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। সেই বার্তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে ফটিকছড়ির কাঞ্চননগরের এ মাদ্রাসায়।

 

আদিত্য নন্দী বলেন, ফটিকছড়ির এই মাদ্রাসায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের সঙ্গে প্রায় এক ঘণ্টা সময় কাটিয়েছি। অনেক মাদ্রাসা ছাত্র মনে করেন তারা অনগ্রসর। আমরা তাদের বুঝিয়ে দিয়েছি তাদের সনদকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছে। অন্যান্য ছাত্রের মতো তারাও বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।