নিজের ফাঁস হওয়া অডিও নিয়ে যা বললেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী

স্টাফ রিপোর্টার :  জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার বিচারকাজ পুরোপুরি বন্ধ রাখার কৌশল নিয়ে বিএনপিপন্থি বুদ্ধিজীবী ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও বেগম জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়ার ফোনালাপের অডিও ফাঁস হয়েছে। এই কথোপকথনের সময় অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়াকে আদালতে না যাবার পরামর্শ দেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এই ব্যাপারে সময় সংবাদের সরাসরি কথা হয় ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সঙ্গে।

নিম্নে দেয়া হল ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সঙ্গে কথোপকথনের চুম্বক অংশ:

সম্প্রতি আপনার সঙ্গে বেগম জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়ার একটি ফোনালাপের অডিও ফাঁস হয়েছে, এ ব্যাপারে আপনার মন্তব্য কি?

ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি বলেছি। আমি সবসময় মনে করেছি এ জাতীয় ক্যাঙ্গারু কোর্ট আইনসম্মত নয়। আমি দু বছর আগেও বকশিবাজার কোর্টে যাবার বিরোধীতা করেছি। আমি খালেদা জয়াকে বলেছি, আপনি নিয়মিত কোর্টে যাবেন, সম্মান করেছেন। কিন্তু আইনকে আমি সম্মান করে বলি, আমাকে আইন বোকা বানাবে এটা তো ঠিক নয়।

উনারা জেল খানার ভিতরে কোর্ট বানাবে এটা অনৈতিক কাজ। এমনকি ড. কামাল হোসেনও বলেছেন এটার কোন ইতিহাস নেই। আমাদের একজন নাগরিক হিসেবে মনে করি, এটা ঠিক নয়। খালেদা জিয়া বলেছেন তিনি কোর্টে যাবেন না। আমি এজন্যই সানাউল্লাহকেও বলেছি, অসুখের কোন কথা না, আদর্শের কথা বলেন। নীতিগতভাবে এটা অনৈতিক কোর্ট তাই খালেদা জিয়ার যাওয়া উচিত নয়। আমি মনে করি আপনাদের যাওয়া উচিত নয়। হ্যাঁ, আমি বলেছি।

দুদকের আইনজীবীর দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল ফোনালাপের বিষয়টিকে ষড়যন্ত্র হিসেবে দেখছেন এবং আইনজীবীরা অনুপস্থিত থাকলেও বিচারকাজ চলতে আইনি বাধা নেই এ কথার প্রেক্ষিতে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘আইনকে তারা একটা গর্দভ বানিয়ে ফেলেছেন। আইনের প্রতি তারা অশ্রদ্ধা করছেন। তারা আইনের কাজ নয় অকাজ সৃষ্টি করছেন।’ কেন তারা জেলখানার ভিতরে কোর্ট বসাবেন? খালেদা জিয়া কি ক্ষুদিরাম? উনি কি দেশে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন। এখানে কোর্ট নেয়াটাই অনৈতিক।