অপরাধ ছিল তার ভালোবাসা…

প্রেমিক গিয়েছিল প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে। কিন্তু প্রেমিকার পরিবার তাদের মেলামেশার বিষয়টি পছন্দ করতো না। তাই এবার তারা আগে থেকে ওৎঁ পেতে ছিল। নির্দিষ্ট জায়গায় তরুণ প্রেমিক পৌঁছার পরই তাকে পাকড়াও করে প্রিয়ার স্বজনরা।

পরে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে আসা ওই তরুণকে চরমভাবে অপদস্থ করে প্রেয়সীর স্বজনরা। ছেলেটিকে তারা ধরে শুধু মারধর করেই ক্ষান্ত হয়নি- একপর্যায়ে মাথা কামিয়ে দেয়। এরপর গলায় জুতার মালা দিয়ে পুরো এলাকায় চক্কর খাওয়ায়।

সময় তারা রীতিমতো আনন্দ মিছিল করে। একদিকে প্রেমিকটিকে চূড়ান্ত রকমের অপমান করা হচ্ছিল অপরদিকে তাকে নিয়ে চলা লোকজন হাস্য-তামাশা করছিল।

গত সোমবার রাতে ন্যাক্কারজনক এ ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের বুন্দেলশহরে। হঠাৎ ‘বিচারক’ বনে যাওয়া একশ্রেণির লোক যখন এই অপকর্ম করছিল তখন রাস্তর লোকজন দাঁড়িয়ে তামাশা দেখছিল। কেউ কেউ ভিডিও-ও ধারণ করে।

বুন্দেল শহরের কোতয়ালী এলাকার সাঠা মহল্লায় সোমবার রাতের এই ঘটনার ভিডিও ক্লিপও এখন সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। একজন প্রেমিকের চরম অসম্মান নিজের গাঁটের টাকা খরচায় ইন্টারনেটের ডাটা কিনে হাজার হাজার লোক দেখছে যাতে বিবেকবান মানুষমাত্রেই আহত হবেন।

ছেলেটির দোষ ছিল কি ছিল না এটা জানা জায়নি তাৎক্ষণিকভাবে। কিন্তু যা ঘটেছে তা হচ্ছে- ভালোবাসার ‘অপরাধে’ এই যুগেও প্রকাশ্যে একজন তরুণকে এভাবে অপদস্থ হতে হয়, চরম অবমাননার শিকার হতে হয়। ওই গ্লানিকর পরিস্থিতি থেকে তাকে রক্ষায় এগিয়ে আসেনি কোনো দরদী প্রেমিক হৃদয়।

পরে পুলিশ গিয়ে তরুণকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। তবে দুই পক্ষই অভিযোগ করেছে। মামলা হয়েছে থানায়। এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তারের খবর জানা যায়নি। একটি পক্ষ ছেলেটিকে ‘ইভটিজার’ বলেও দাবি করে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে এর সত্যতা জানা যায়নি।

ঘটনার শিকার ছেলেটি ও তার প্রেমিকার পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে।