আফগানিস্তান প্রিমিয়ার লিগে উপেক্ষিত হল আশরাফুল-সাব্বিররা

আফগানিস্তান প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টির অভিষেক আসরের প্লেয়ার্স ড্রাফটে জায়গা পেয়েছিলেন মোট ১৪জন বাংলাদেশি ক্রিকেটার। সেখান থেকে দল পেয়েছেন বর্তমান জাতীয় দলের অন্যতম দুই ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম।

দুজন ক্রিকেটারকেই দলে ভিড়িয়েছে আসরের অন্যতম প্রতিযোগী দল নঙ্গরহার। প্রথমে ডায়মন্ড ক্যাটাগরিতে থাকা তামিম ইকবালের পর গোল্ড ক্যাটাগরি থেকে মুশফিকুর রহিমকেও দলে টানে ফ্র্যাঞ্জাইজিটি।

এর ফলে আসন্ন এ প্রতিযোগিতাটিতে দেশসেরা ওপেনার তামিমের সাথে একই দলের হয়ে এপিএল মাতাতে দেখা যাবে বাংলাদেশ জাতীয় দলের তারকাএ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানকেও।

শুরুতে জাতীয় দলের এ দুই তারকা ক্রিকেটারকে দলে ভেড়ানোর পর আরও বাংলাদেশি ক্রিকেটার দল পেতে পারে এমনটা ভাবা হলেও শেষ পর্যন্ত তা আর হয়নি। মোহাম্মদ আশরাফুল, শাহরিয়ার নাফীসসহ বর্তমান জাতীয় দলের সদস্য ইমরুল কায়েস, সাব্বির রহমানদের উপেক্ষা করেই শেষ হয় এবারের আসরের প্লেয়ার্স ড্রাফট পর্বটি।

যার ফলে প্লেয়ার্স ড্রাফট থেকে আসন্ন এপিএলে অংশ নেওয়ার সুযোগ পেলেন কেবল তামিম-মুশফিক এ দুজন বাংলাদেশি ক্রিকেটারই।

এর আগে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এপিএলের প্রথম আসরের প্লেয়ার্স ড্রাফটে জায়গা মিলেছিল তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ আশরাফুল, ইমরুল কায়েস, শাহরীয়ার নাফীস, এনামুল হক বিজয়, লিটন কুমার দাস, আবুল হাসান রাজু, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ, আবু হায়দার রনি, আব্দুর রাজ্জাক ও সানজামুল ইসলামসহ মোট ১৪জন বাংলাদেশি ক্রিকেটারের।

প্রসঙ্গত, এবারে এপিএলের আসরটি সংযুক্ত আরব আমিরাতে আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। বিষয়টি আগেই নিশ্চিত করেছিল এসিবি। আসন্ন এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিবে মোট পাঁচটি দল। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী দলগুলো নেওয়া হচ্ছে আফগানিস্তানের পাঁচটি প্রদেশের নামানুসারে। কাবুল, কান্দাহার, নঙ্গরহার, পাকতিয়া ও বালখ নামে দলগুলো অংশ নিচ্ছে এবারের আসরে।

৫ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত মোট ১৯ দিনব্যাপী চলবে প্রতিযোগিতার এবারের আসরটি। যেখানে আয়োজিত হবে মোট ২৩টি ম্যাচ।