সমস্যার শেষ নেই ভিভোর নতুন ফোনে, তবুও আসছে দেশের বাজারে

চীনা বহুজাতিক কোম্পানি ভিভো কিছুদিন পরপরই বাজারে সস্তামূল্যের নতুন নতুন ফোন আনার ঘোষণা দেয়। সাধারণ ক্রেতাদের টার্গেট করে তৈরি চীনা এই কোম্পানির ফোন বাজারে আনার আগে ঢাকঢোল পেটানো হলেও ফোনের সমস্যাগুলো থেকে যায় আড়ালে।

রোববার থেকে বাংলাদেশের বাজারে ভিভোর নতুন দুটি ফোন ভিভো ভি১১ এবং ভিভো ভি১১ প্রো পাওয়া যাবে বলে কোম্পানিটি জানিয়েছে। কিন্তু প্রযুক্তিভিত্তিক একটি ওয়েবসাইট চীনা এই কোম্পানির নতুন ফোন দুটির কয়েক ডজন সমস্যার কথা তুলে ধরেছে।

ভিভো ভি১১ এবং ভিভো ভি১১ প্রো; সমস্যার শেষ নেই

>>বেশ কিছুক্ষণ ভিভো ভি১১ এবং ভিভো ভি১১ প্রো দু’টি ব্যবহার করলে ফোনের পাশাপাশি ব্যাটারিও হঠাৎ গরম হয়ে যায়।

>>ভিভো ভি১১ এ কোনো ভিডিও দেখছেন কিংবা কথা বলছেন; সবকিছু্ই চলছে ঠিকভাবে। কিন্তু কথা কিংবা ভিডিও দেখার মাঝে কখন যে ফোনটি বন্ধ হয়ে গেছে তা আপনি টেরও পাবেন না। অর্থাৎ কোনো ধরনের সংকেত দেয়া ছাড়াই যখন-তখন শাট ডাউন হয়ে যায় এই ফোন। ভিডিও ভি১১ প্রো ফোনেও একই ধরনের সমস্যা রয়েছে।

>>স্ক্রিন টাচ এই ফোনে টাচ সঠিকভাবে কাজ করে না। আপনি হয়তো আঙুল চালাচ্ছেন ঠিকই কিন্তু স্ক্রিনে কোনো পরিবর্তন আসছে না। কাউকে কল করবেন; নাম্বার চাপছেন কিন্তু কল দিতে গিয়ে আর কোনো কাজ করছে না। অথবা পছন্দের গেইম খেলতে শুরু করেছেন কিন্তু খেলার মাঝে দেখবেন হঠাৎ ক্র্যাশ হয়ে গেছে।

>> ভিভোর ফোনে নতুন কোনো অ্যাপস ইন্সটল করতে চান? স্মার্টফোনে নতুন নতুন অ্যাপস প্রতিনিয়তই ইন্সটল করেন ব্যবহারকারীরা এবং এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ভিভো ভি১১ এবং ভিভো ভি১১ প্রো ফোনে নতুন অ্যাপস ইন্সটল করার পর থেকেই ফোনটি আপনা-আপনি স্লো হয়ে যাবে।

>>ভিভো ভি১১ প্রো ফোনে ব্লুটুথ অ্যাপ্লিকেশন থাকলেও অন্য কোনো ফোন বা ডিভাইসের সঙ্গে এটি কাজ করে না। অর্থাৎ ব্লুটুথ সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হয় না।

>> মোবাইল ডাটা অথবা সেলুলার নেটওয়ার্কে রয়েছে সমস্যা। অনেক সময় নতুন এই ফোনে ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপন করা যায় না।