চাকরির কাগজপত্র জমা দিয়ে তরুণীর আত্মহত্যা

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি : চাকরির খোঁজে এসে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় সুমি আক্তার নুপুর (২০) নামের এক তরুণী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। মৃত সুমি আক্তার নুপুর নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের সাগর মিয়ার মেয়ে। শ্রীপুর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আশরাফুল্লাহ বলেন, নুপুর শ্রীপুর পৌর এলাকার বৈরাগীরচালা গ্রামে থেকে মোশারফ কম্পোজিট নামের এক কারখানায় চাকরি করতেন। ওই চাকরি ছেড়ে এএ ইয়ার্ন ডায়িং কারখানায় নতুন চাকরির খোঁজে বৃহস্পতিবার রাতে পূর্বপরিচিত সহকর্মীদের কাছে যান নুপুর। চাকরির জন্য কারখানার কর্তৃপক্ষের কাছে যাবতীয় কাগজপত্রও জমা দেন তিনি।

শুক্রবার রাতে এএ ইয়ার্ন ডায়িং কারখানার শ্রমিক কোয়ার্টারের একটি কক্ষে অন্যান্য শ্রমিকদের সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়েন নুপুর। শনিবার ভোরে কোনো সাড়া-শব্দ পেয়ে ওই কক্ষের একজন শ্রমিক নুপুরকে ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ঝুলতে দেখেন।

তাকে উদ্ধার করে প্রথমে মাওনা চৌরাস্তার আলহেরা হাসপাতালে এবং পরে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এসআই আশরাফুল্লাহ আরও জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহম্মদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে এ বিষয়ে বিস্তারিত বলা যাবে।