শাকিবকে নিয়ে যা বললেন নবাগত রোদেলা

রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে বুধবার (৫ সেপ্টেম্বর) শাপলা মিডিয়া প্রযোজিত ‘শাহেনশাহ’ ছবির মহরত অনুষ্ঠিত হয়ে গেল।

আগেই জানা গিয়েছিল, ছবিটিতে ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান এবং নুসরাত ফারিয়া অভিনয় করবেন। কিন্তু, শাকিব খানের বিপরীতে আরেক নায়িকা কে হতে যাচ্ছেন তা জানা ছিল না।

অবশেষে ছবিটির সদ্যসমাপ্ত মহরত অনুষ্ঠানে সেই নবাগত নায়িকাকে পরিচয় করিয়ে দেয়া হল। নতুন এই নায়িকার নাম হলো- রোদেলা জান্নাত। সবকিছু ঠিক থাকলে শামীম আহমেদ রনি পরিচালিত এই ছবিটির শুটিং খুব শিগগিরই শুরু হবে বলে জানা গেছে।

কে এই রোদেলা? যে সব দর্শকদের মনে এমন প্রশ্ন জমে আছে তারা জেনে নিন, শাকিব খানের এই নতুন নায়িকা মালয়েশিয়ার লিমককউইং ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি’র ছাত্রী। একটি বেসরকারি চ্যানেলে সংবাদ পাঠিকা হিসেবে কিছুদিন কাজও করেছেন রোদেলা। এছাড়াও নবাগত এই নায়িকা ক্ল্যাসিকাল নাচেও বেশ পারদর্শী।

এদিকে ‘শাহেনশাহ’র মহরতে রোদেলা জানান, আমি তখন মালয়েশিয়ার গবেষণার কাজ করছিলাম, শাকিব ভাই ‘শিকারী’র প্রচারণায় সেখানে গিয়েছিলেন। ওখানেই তার সঙ্গে প্রথম দেখা হয়। কিন্তু, সে সময়টাতে আমি অনেক ব্যস্ত ছিলাম। তখন তিনি বলেছিলেন, তুমি বাংলাদেশে আসো। তোমার গ্রুমিংয়ের প্রয়োজন আছে। অভিনয়টাও শেখা দরকার। এরপর আমি অনেকটা সময় ধরে দেশে আসতে পারিনি। তবে কয়েক মাস আগে তার সঙ্গে চুক্তি হয়। তিনি তালিম নেয়ার জন্য আমাকে শিক্ষক দিয়েছিলেন। শাকিব ভাই রীতিমতো আমার গুরু, আমাকে প্রশিক্ষণ দিয়েছেন তিনি। কীভাবে কি করতে হবে তা তিনি-ই শিখিয়েছেন। এরপর তো ‘শাহেনশাহ’র মতো বড় বাজেটের ছবিতে সুযোগ পেয়ে গেলাম।

‘শাহেনশাহ’ ছবিতে সুযোগ পাওয়ার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে রোদেলা জান্নাত বলেন, একটা নতুন মেয়ে ঢালিউড কিং খানের সাথে কাজ করবে এটা শোনার পর কি অনুভব করছে সেটা ঠিকভাবে ব্যক্ত করতে পারবে না। সে নার্ভাস হয়ে যাবে। সে ভাববে আমি সত্যিই কতটা ভাগ্যবান! আমি সর্বোচ্চ বলতে পারবো, ভালো লাগছে। আমার হাঁটু কাঁপছে। আমি অনেক নার্ভাস এবং এক্সাইটেড। শাকিব স্যারকে ধন্যবাদ, তার জন্য আজ আমি এখানে। তার জন্যই কাজ করার একটা জায়গা খুঁজে পেয়েছি। সেলিম (শাহেনশাহ ছবির প্রযোজক সেলিম খান) স্যারকেও ধন্যবাদ। সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আমার জন্য প্লিজ সবাই দোয়া করবেন।

নিজেকে ভবিষ্যতে কোথায় দেখতে চান সে সম্পর্কে জানতে চাইলে রোদেলা বলেন, এ বিষয়টি আমাকে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ফেলে দেয়। আমি সব সময় ভাবি আমার বর্তমান কাজটা ভালোভাবে করতে হবে। আগে আমি হাতের কাজটা ভালো করে শেষ করি। এরপর সময় বলে দেবে সামনে আমাকে কি করতে হবে। পড়াশুনা তো করছিই। ওটা একটা সময় শেষ হয়ে যাবে। ছবিতে কি হবে এটা শুরু না করে কিছু বলতে পারছি না। আমি কতটা ভালোভাবে করতে পারছি- সবকিছু তার ওপর নির্ভর করছে বলেও জানান তিনি।

অবশ্য ফিল্ম পাড়ার কান পাতলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে এবং কেউ কেউ বলছেন রোদেলা নাকি ‘শাহেনশাহ’ ছবির পরিচালক রনির ‘ঘনিষ্ঠ’ বন্ধু। আর সে সুবাদেই নাকি রোদেলার নায়িকা হওয়ার পথটি তরান্বিত হল।