স্কুলে কফি নিষিদ্ধ করল দক্ষিণ কোরিয়া

 শিশুদের স্বাস্থ্যসুরক্ষা নিশ্চিত করতে স্কুলগুলোতে কফি বিক্রি নিষিদ্ধ করল দক্ষিণ কোরিয়ার প্রশাসন। খাদ্য এবং পানীয়তে অতিমাত্রার ক্যাফেইন এবং ক্যালেরি হ্রাসে সচেতনতা বিষয়ক প্রচারণার অংশ হিসেবে শিক্ষকরাও কর্মক্ষেত্রে কফি কিনতে পারবেন না।

এনার্জি ড্রিংক এবং উচ্চমাত্রার ক্যাফেইন গ্রহণে দক্ষিণ কোরিয়ার স্কুলে ইতোমধ্যে বিধি-নিষেধ রয়েছে। তবে শিক্ষকদের জন্য ভেন্ডিং মেশিন এবং কিয়োকসে কফি পাওয়া যেত। আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে কার্যকর হওয়া এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক স্কুলে কফি বিক্রি করা যাবে না।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, কফিপানের কারণে ঘুমের ব্যাঘাত, মাথাব্যাথা, বুকে ব্যাথা, বিরক্তির মত নানা সমস্যা দেখা যায়। মন্ত্রণালয় এরইমধ্যে শিশুদের জন্য অস্বাস্থ্যকর খাবার এবং পানীয় সম্পর্কে সতর্কতা জারি করে টিভিতে বিজ্ঞাপন দিচ্ছে।

যদিও ১৯৯০ সালে দেশটিতে স্টারবাকস আসার পর কফি পান মাত্রাতিরিক্ত বেড়ে যায়। ২০১৬ সালে দেশটির নাগরিকপ্রতি কফি মজুদ ছিল ২.৩ কেজি। যা কোন এশিয় দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ। ২০১১ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত দেশটিতে কফিশপ ১২ হাজার ৪০০ থেকে ৪৯ হাজার ৬০০ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। ইন্ডিপেনডেন্ট।