মুখ্যমন্ত্রী মমতার লেখা কবিতায় ধরাশায়ী নরেন্দ্র মোদী

 ভারতের লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একের পর এক ইস্যুতে সরব হচ্ছেন।

কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে মানুষের কাছে বার্তা পৌঁছে দিচ্ছেন বিভিন্ন মাধ্যমে। দিনকয়েক আগেই এনআরসি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে একটি কবিতা লিখেছিলেন তিনি।

এবার ফের কবিতায় তোপে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এবারের বিষয় হল ‘আধার’। বৃহস্পতিবার ওই কবিতা লিখে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই সেই কবিতা শেয়ার হতে শুরু করেছে। আধার ইস্যুতে আগেও বারবার মুখ খুলেছেন মমতা।

আধার লিংক করার পদ্ধতিতে যে সাধারণ মানুষের ব্যক্তিগত বিষয় ও গোপনীয়তা ক্ষুণ্ণ হচ্ছে, সেকথাও উল্লেখ করেছেন তিনি। বিভিন্ন সময়ে তিনি বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেছেন, তিনি কোনোভাবেই মোবাইল নম্বরের সঙ্গে আধার লিংক করার পক্ষপাতী নন।

এবার কবিতার মাধ্যমে নাম না করেই সরাসরি তোপ দেগেছেন মোদী সরকারের বিরুদ্ধে। কবিতার নাম ‘উঁকি Online।’ কবিতার একটি লাইনে মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, ‘জীবনটাই তো চলে গেছে Aadhar-এর অন্দরে!’ মমতার দাবি, ‘কোনও রাখঢাক নেই, একেবারে উলঙ্গ উঁকি’।

অর্থাৎ, আধারের জমানায় সব তথ্যই প্রকাশ পেয়ে যাচ্ছে বলে দাবি মুখ্যমন্ত্রীর। আধারের সিস্টেম নিয়েই যে তার আপত্তি সেটা বেশ স্পষ্ট ওই কবিতায়। সঙ্গে নিশানা করেছেন মোদীর ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’কেও।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর, বিশেষত নোট বাতিলের পর বারবার ডিজিটাল লেনদেনের উপর জোর দিয়েছেন। ভারতে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে ডিজিটাল মার্কেটও। সেখানেই আপত্তি মমতার।

এর আগে, কোন মাপকাঠিতে দেশের নাগরিকের গায়ে দেশদ্রোহী-অনুপ্রবেশকারীর তকমা লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে, সেই প্রশ্ন তুলে ‘পরিচয়’ নামের একটি কবিতা লেখেন তৃণমূলের এই নেত্রী।

সেখানেও কোনও রাজনৈতিক দলের নাম না থাকলেও এটা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছিল যে, কবিতার মাধ্যমে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপিকেই বুজাতে চেয়েছেন।