মুসলিমরা বিষাক্ত জেলিবিনের মত: অস্ট্রেলিয়ান সিনেটর

 বিতর্কিত মন্তব্য করলেন অস্ট্রেলিয়ান সিনেটর ফ্রাসের অ্যানিং। মুসলিমরা নাকি বিষাক্ত জেলি বিনের মত। এমনই মত তার। বুধবার তার এই মন্তব্যে বিতর্ক ছড়িয়েছে। অনুপ্রবেশ প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়েই এই মন্তব্য করেন ফ্রাসের।

কনজারভেটিভ ক্যাটারস অস্ট্রেলিয়ান পার্টির সদস্য ও অস্ট্রেলিয়ান পার্লামেন্টের সিনেটর ফ্রাসের সংসদে মুসলিমদের অস্ট্রেলিয়াতে অভিবাসন প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখছিলেন। সেখানেই এই মন্তব্য করেন তিনি।

এরপরেই ফ্রাসেরের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায় দেশ জুড়ে। তার এমন প্রস্তাবের কড়া সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল সহ অনেক সাংসদ।

তাদের মতে এই ধরণের প্রস্তাব কখনই কোনও দেশের পক্ষে ইতিবাচক হতে পারে না। এই ধরণের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেশের পক্ষে ক্ষতিকর বলে মত তাদের।

তবে তাতে আমল না দিয়ে সিডনি টকব্যাক রেডিওতে এক সাক্ষাতকারের সময়েও একই কথা বলেন ফ্রাসের। তার মতে অভিবাসী মুসলিমরা অস্ট্রেলিয়ায় এসে দেশের ক্ষতি করছে।

তার মতে যদি আপনার কাছে বোতল ভরতি জেলিবিন থাকে, আর তার মধ্যে যেকোনও তিনটি জেলিবিন বিষাক্ত হয়, তবে আপনি কোনও জেলিবিনই খাবেন না। তাই এদের মধ্যে কে সৎ আর কে অসৎ, তা বোঝা মুশকিল। তাই অনুপ্রবেশ ও অভিবাসন বন্ধ হওয়া উচিত।

ফ্রাসের অ্যানিং আরও বলেন, মুসলমানেরা সন্ত্রাসবাদী কাজে ও বিভিন্ন অপরাধের জন্য দায়ী। অস্ট্রেলিয়ায় জঙ্গি হানা রুখতে মুসলিম অভিবাসীদের নিষিদ্ধ করাই সর্বশেষ সমাধান। এছাড়া তার এই প্রস্তাব বাস্তবায়নের জন্য গণভোটেরও দাবি করেন অ্যানিং।

এরপরই তার এমন প্রস্তাবের নিন্দা করে বক্তব্য রাখেন একাধিক সাংসদ। ১৯৯৬ সালের পর অ্যানিং-এর এই বক্তব্যকে সবচেয়ে বড় বিতর্কিত বক্তব্য বলে ব্যাখ্যা করেছেন অন্যান্যরা। সংসদে ফ্রাসেরের এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে আরেক নেতা পোলিং হ্যানসন বলেন, আমরা সবাই তার কথা হতবাক। তিনি নিজের সীমা ছাড়িয়েছেন।